এলআরবি’র গানের সুর নকল করে পাকিস্তানে বিজ্ঞাপন

বিনোদন

স্টাফ রিপোর্টার | ১৭ মে ২০১৮, বৃহস্পতিবার
এলআরবির তুমুল জনপ্রিয় গান ‘সেই তুমি কেন এত অচেনা হলে’ গানের সুর ব্যবহার করেছে পাকিস্তানের একটি ফ্যাশন হাউজ। ক্রসস্টিচ নামের প্রতিষ্ঠানটি তাদের বিজ্ঞাপনচিত্রের আবহ সংগীত হিসেবে ব্যবহার করেছে এই গানের বাঁশি সংস্করণ। বিজ্ঞাপনটি পাকিস্তানের অনলাইন টেলিভিশন বিজম্যাক্স টিভি প্রচার করছে তাদের ফেসবুক পেজ আর ইনস্টাগ্রামে। গত সোমবার সন্ধ্যায় ক্রসস্টিচের এই বিজ্ঞাপনচিত্র পাবলিশ করে বিজম্যাক্স। এরপর এই অনলাইন টিভির ফেসবুক পেজে অনেকেই প্রতিবাদ করেছেন। তবে ২০১৬ সালের ৫ই জুলাই ২ মিনিট ৪৮ সেকেন্ডের এই বাঁশি সংস্করণটি ইউটিউবে প্রকাশ করেন রাকিবুল ইসলাম নামের এক তরুণ শিল্পী। বিষয়টি নিয়ে গিটার লিজেন্ড ও এলআরবি ব্যান্ডের প্রধান আইয়ুব বাচ্চু বলেন, বিষয়টি খুবই দুঃখজনক। আমি জানি না এরকম কাজের প্রতিবাদের ভাষা কি হতে পারে।
ওরা খুব খারাপ কাজ করেছে। তিনি আরো বলেন, সত্যি বলতে একদিক দিয়ে আমার কিন্তু গর্বও হচ্ছে। বাংলাদেশের মিউজিকের আশ্রয় নিতে হলো পাকিস্তানকে। ওরা সুর তৈরি করার ক্ষমতাও এখন হারিয়েছে। আইয়ুব বাচ্চু ঘটনা প্রসঙ্গে বলেন, যিনি এই বাঁশি সংস্করণটি ইউটিউবে ছেড়েছিলেন, তিনিও আমাদের কাছ থেকে কোনো অনুমতি নেননি। এখন বিশ্বায়নের যুগ। যে যেখান থেকে যেভাবে পারছে, নিচ্ছে। এ ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ নেবেন কিনা জানতে চাইলে আইয়ুব বাচ্চু বলেন, দেশে এবং দেশের বাইরে সবাই জানে গানটা আমাদের। গানটার কপিরাইটও করা আছে। এখনই কোনো সিদ্ধান্ত জানাচ্ছি না। তবে অবশ্যই কোনো পদক্ষেপ নেবো।





এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

লিবিয়ায় সরিয়ে নেয়া হলো ২৫০ বাংলাদেশিকে

ফেরদৌসের পর নূরকে ভারত ছাড়ার নির্দেশ

আগুনে পুড়লো মালিবাগের ২৬০ ব্যবসায়ীর সম্বল

ভারতে ভোটে হাঙ্গামা, ইভিএম বিভ্রাট

জরুরি সফরে ঢাকা আসছেন ভারতের বিদেশ সচিব

ফেঁসে যাচ্ছেন রাজউকের ২০ কর্মকর্তা-কর্মচারী

সড়ক দুর্ঘটনায় ১১ জনের মৃত্যু

প্রধানমন্ত্রীর ব্রুনাই সফরে ছয় চুক্তি হতে পারে

সুবীর নন্দীর শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত

দেশে এখন অবলীলায় হত্যা ধর্ষণ হচ্ছে: ফখরুল

গণমাধ্যমের স্বাধীনতায় ৪ ধাপ পিছিয়ে ১৫০তম বাংলাদেশ

প্রেমের ফাঁদে ফেলে অপহরণ, ৬ দিন পর উদ্ধার

ম্যালেরিয়া ঝুঁকিতে ১ কোটি ৮০ লাখ মানুষ

‘আমার সবকিছু কেড়ে নেয়ার পর মেয়ের দিকে কু-দৃষ্টি পড়ে যুবলীগ নেতা উজ্জ্বলের’

ভূঞাপুর হাসপাতালে সেবা না পেয়ে রাস্তায় সন্তান প্রসব

পুলিশের ভূমিকার বিচারবিভাগীয় তদন্ত দাবি টিআইবি’র