খালেদা-তারেককে নিয়ে কটুক্তি মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী গ্রেপ্তার

অনলাইন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৮ জুলাই ২০১৮, বুধবার, ৪:৫৪ | সর্বশেষ আপডেট: ৯:০৪
ফেসবুক লাইভে এসে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে নিয়ে কটু মন্তব্য করায় মালয়েশিয়ায় আসাদুজ্জামান আসাদ ওরফে পংপং নামের একজন বাংলাদেশিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মালয়েশিয়ায় স্থানীয় বিএনপি নেতাদের অভিযোগের পর পুলিশ তার বিরুদ্ধে এই ব্যবস্থা নিয়েছে। বিবিসি বাংলার এক প্রতিবেদনে এ কথা জানানো হয়।

এতে বলা হয়, খালেদা জিয়াকে কটুক্তির দায়ে বাংলাদেশীকে গ্রেপ্তারের খবর নিশ্চিত করেছেন মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী সাংবাদিকদের প্রেসক্লাবের সভাপতি মো. মনির হোসেন। তিনি বলেন, আসাদুজ্জামান আসাদ প্রায়ই ফেসবুক লাইভে এসে বিভিন্ন ব্যক্তিকে গালাগাল দিতেন। কিছুদিন আগে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে এরকম গালাগালি দেয়ার পর স্থানীয় বিএনপির নেতা মামুন বিন আবদুল্লাহ শনিবার একটি মামলা করেন।
এরপর মঙ্গলবার রাতে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ হেফাজতে থাকায় আসাদের সঙ্গে কথা বলা সম্ভব হয়নি। দেশটিতে তার কোন স্বজনও থাকেন না বলে জানিয়েছেন প্রবাসী সাংবাদিকরা। তবে তারা বলছেন, এই ব্যক্তির বিষয়ে তারা আগে খুব একটা জানতেন না। সম্প্রতি ফেসবুক লাইভের কারণে তিনি মালয়েশিয়ায় প্রবাসী বাংলাদেশীদের কাছে পরিচিত হয়ে উঠেছেন।

আসাদুজ্জামান আসাদের কয়েকটি লাইভ পর্যালোচনা করে দেখা যায়, তিনি প্রায়ই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ফেসবুক লাইভ করেছেন। এর মধ্যে কোন কোন লাইভে বরিশালের আঞ্চলিক ভাষায় বাংলাদেশের সরকারি বা বিরোধী দলের নেতা, বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষজনকে নিয়ে কটু ভাষায় মন্তব্যও করেছেন। তবে ফেসবুকে একটি বার্তায় তিনি খালেদা জিয়াকে নিয়ে মন্তব্যের জন্য দুঃখপ্রকাশ করেন। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরকারী মালয়েশিয়া বিএনপির নেতা মোহাম্মদ মামুন বিন আব্দুল মান্নান বলছেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানকে নিয়ে ফেসবুকে যে বিভিন্ন ধরণের বাজে মন্তব্য করেছেন, সেজন্য মালয়েশিয়ার বিএনপির পক্ষ থেকে মানহানির অভিযোগে চুঙ্গাইবুলু থানায় মামলাটি দায়ের করেছি। সেখানে অভিযোগ করা হয়, তিনি বিভিন্ন সময় ফেসবুকে বাংলাদেশের সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানকে উদ্দেশ্য করে বাজে মন্তব্য করেছেন, যা তাদের জন্য মানহানিকর। তাই বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পুলিশকে অনুরোধ করা হয়।

মঙ্গলবার রাতে আসাদুজ্জামান আসাদকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এখন অভিযোগটি তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে। স্থানীয় সাংবাদিক মনির হোসেন জানান, তার নাম আসাদুজ্জামান আসাদ হলেও মালয়েশিয়া তিনি 'পংপং' নাম নিয়েছেন। এখানে তিনি অনেক বছর ধরে রয়েছেন বলে তারা জানতে পেরেছেন। মালয়েশিয়ার আইনে মানহানি একটি সিভিল ও ক্রিমিনাল, উভয় ধরণের অপরাধ হিসাবে গণ্য হয়। তবে এ ধরণের অভিযোগে জামানত সাপেক্ষে জামিনের বিধান রয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে কারাদন্ড বা জরিমানা বা উভয় দন্ড হতে পারে।
মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সিলর মো. সায়েদুল ইসলাম জানিয়েছেন, এখনো এই গ্রেপ্তারের বিষয়ে মালয়েশিয়ার পক্ষ থেকে তাদের কিছু জানানো হয়নি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

গোলাম কিবরিয়া

২০১৮-০৭-১৮ ১০:১০:৩৭

মালায়শিয়ার সরকার ওকে কঠিন শাস্তি দেউক।

আপনার মতামত দিন

১৫ই আগস্ট জাতির জন্য শুধু শোকের নয়, লজ্জারও

সিঙ্গাপুরের শীর্ষ ৫০ ধনীর একজন বাংলাদেশের আজিজ খান

হলের সামনে থেকে ঢাবি ছাত্রী আটক

বাস অযোগ্য শহরের তালিকায় ঢাকা দ্বিতীয়

মানহানির মামলায় খালেদার জামিন

গোলাম সারওয়ারের দাফন কাল

মৃত্যুর এই কাফেলা বন্ধ হবে কবে?

ঢাকায় ন্যায় বিচারের খোঁজে

রাখাইনে যা দেখে এলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

হুইলচেয়ারে চলাফেরা করছেন নওশাবা

সিলেটে রাজু খুনের ঘটনায় মামলা

নতুন কলরেট নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া

বিএনপি নির্বাচন বানচালের চেষ্টা করছে

বাংলাদেশের সব এজেন্সির জন্য মালয়েশিয়ার শ্রম বাজার উন্মুক্ত

গুজব সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগকে সরব হওয়ার আহ্বান ড. হাছান মাহমুদের

‘এ দেশের মাটি স্বৈরাচারের নয়’