স্পেনের ইতিহাসে সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিচার

রকমারি

অনলাইন ডেস্ক | ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, বৃহস্পতিবার
স্পেনে মঙ্গলবার কাতালুনিয়ার বিচ্ছিন্নতাকামীদের বিচার শুরু হয়েছে৷ একে দেশটির শতাব্দীর সবচেয়ে উল্লেখযোগ্য বিচার বলে আখ্যায়িত করা হচ্ছে৷

কীসের বিচার?
 
২০১৭ সালে কাতালুনিয়ার রাজ্য সরকার রাজ্যের স্বাধীনতার লক্ষ্যে একটি গণভোট (ছবি) আয়োজন করেছিল। স্পেনের সাংবিধানিক আদালত অবশ্য সেই গণভোট আয়োজনকে অবৈধ বলে রায় দিয়েছিল৷ গণভোটের ২৬ দিন পর কাতালুনিয়ার স্বাধীনতা ঘোষণা করা হয়। এসব ঘটনায় স্পেনের তৎকালীন সরকার কাতালুনিয়ার সরকার ভেঙে রাজ্যের ক্ষমতা কেন্দ্রে নিয়ে যায়৷ এবং বিচ্ছিন্নতাকামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে৷
 

কাদের বিচার?
মোট বার জনের বিরুদ্ধে বিচার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে৷ এর মধ্যে ১০ জন রাজনীতিবিদ, বাকি দুজন অ্যাক্টিভিস্ট৷ রাজনীতিবিদদের মধ্যে আছেন কাতালুনিয়ার সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট ওরিয়ল শোঙকেরাস, রাজ্য সরকারের সাবেক স্পিকার এবং মন্ত্রিসভার কয়েকজন সাবেক সদস্য৷

অভিযোগ
কাতালুনিয়ার সাবেক ভাইস-প্রেসিডেন্ট শোঙকেরাসের বিরুদ্ধে বিদ্রোহের অভিযোগ আনা হয়েছে৷ আর জনগণের টাকা খরচ করে গণভোট আয়োজন করায় মন্ত্রিসভার সদস্যদের বিরুদ্ধে অর্থ অপচয়ের অভিযোগ উঠেছে৷ এছাড়া রাষ্ট্রদোহিতা ও অবাধ্যতার অভিযোগ আনা হয়েছে৷

রায় কবে?
প্রায় ৫০০ জন প্রত্যক্ষদর্শীর বক্তব্য শোনা হবে৷ ফলে বিচার কার্য শেষ হতে অন্তত তিনমাস লাগবে৷ এরপর রায় হতে লাগবে আরো কয়েক মাস৷ বিচারকার্য টেলিভিশনে সরাসরি প্রচার করা হবে৷ ছবিতে স্পেনের সুপ্রিম কোর্ট দেখতে পাচ্ছেন যেখানে বিচার চলছে৷

সাজার মেয়াদ
বিদ্রোহের অভিযোগ প্রমাণিত হলে কাতালুনিয়ার সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট শোঙকেরাসের ২৫ বছর পর্যন্ত সাজা হতে পারে৷ এছাড়া স্পিকার ও দুই অ্যাক্টিভিস্টের ১৭ বছরের জেল হতে পারে৷  

আপিলের সুযোগ
রায় যা-ই হোক না কেন দুই পক্ষই আপিল করতে পারবে৷ এছাড়া অনুশোচনা প্রকাশ করে ক্ষমা চাইলে কেন্দ্রীয় সরকারের ক্ষমা করে দেয়ার সুযোগ থাকবে৷

পুজদেমন কোথায়?
গণভোট আয়োজনের সময় কাতালুনিয়ার প্রেসিডেন্ট ছিলেন কার্লেস পুজদেমন৷ গণভোটের পর তিনি পালিয়ে প্রথমে ব্রাসেলস চলে যান৷ এখন আছেন জার্মানিতে৷ স্পেন তাকে ফেরত পাঠানোর অনুরোধ জানিয়েছিল৷ কিন্তু জার্মানির এক আদালত বলেছে, বিদ্রোহের অভিযোগে বিচার জন্য পুজদেমনকে স্পেনে পাঠানো যাবে না৷ ফলে তিনি এখনো জার্মানিতেই আছেন৷

সংঘাতের শুরু
২০১৭ সালের গণভোট আয়োজনের প্রেক্ষাপট জানতে ২০১০ সালে ফিরে যেতে হবে৷ সেই সময় কাতালুনিয়ার আঞ্চলিক চার্টার বা সনদে কাতালুনিয়াকে নেশন হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছিল৷ কিন্তু স্পেনের সাংবিধানিক আদালত সেটি ফেলে দেন৷ ঐ ঘটনার পর কাতালুনিয়ায় বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলন গতি পায়৷



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

মানাং মার্সিয়াংদিকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিল আবাহনী

আইন ও বিচার বিভাগের বরাদ্দ বাড়ানোর দাবি

মসজিদে ঘোষণা দিয়ে নির্বাচনে ভোটার আনা যাচ্ছে না

কর্তৃত্ববাদী শাসনের অনিশ্চিত গন্তব্যে বাংলাদেশ: মাহবুব তালুকদার

ফুলপুরের নিখোঁজ সেই ৩ যমজ বোন উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৬

ঝিনাইদহে পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগ

দেশে ফিরছেন ভানুয়াতুতে পাচার হওয়া বাংলাদেশীরা

ছাত্রলীগের কমিটিই তো ফেসবুকে হয়, বললেন অব্যাহতি চাওয়া নেতা

লোকসভার নতুন স্পিকার ওম বিড়লা

‘পরকীয়ার কারণে খুন হন মুয়াজ্জিন সোহেল’

ভাণ্ডারিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্র হত্যার প্রতিবাদে মানববন্ধন

আজও বুয়েট শিক্ষার্থীরা রাজপথে

মুরসিকে হত্যার অভিযোগ, নিরপেক্ষ তদন্ত দাবি জাতিসংঘের

‘মাদক ব্যবসায় না জড়ানোয় জান্নাতিকে পুড়িয়ে হত্যা’

বেনাপোলে বাসচাপায় ব্যবসায়ী নিহত

ঢাবি ছাত্রীকে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণ, ভিডিও ধারণ, অত:পর.....