যশোরে মন্দিরে শিশু ধর্ষণের চেষ্টা, পুরোহিত আটক

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, যশোর থেকে | ১৭ এপ্রিল ২০১৯, বুধবার, ৩:২০
যশোর শহরতলীর একটি মন্দিরের ভেতরে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে প্রকাশ ব্যানার্জী (৫৪) নামের এক পুরোহিতকে আটক করেছে কোতয়ালী পুলিশ। এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে কোতয়ালী থানায় শিশু নির্যাতন আইনে ওই পুরোহিতের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। মঙ্গলবার রাতে যশোর শহরতলী বিরামপুর শ্রী শ্রী অনুকূল চন্দ্র ঠাকুর মন্দির থেকে তাকে আটক করা হয়। আটক প্রকাশ ব্যানার্জী ওই মন্দিরের পুরোহিত এবং একই এলাকার কালীপদ ব্যানার্জীর ছেলে।

যশোর কোতোয়ালি থানার ইনসপেক্টর (তদন্ত) সমীর কুমার সরকার বলেন, ১৬ই এপ্রিল দুপুরে প্রকাশ ব্যানার্জী মন্দিরে পূজা অর্চনা করছিলেন। সেই সময় শিশুরাও উপস্থিত ছিল। একপর্যায়ে প্রকাশ তার এক প্রতিবেশীর সাড়ে ৯ বছর বয়সী এক মেয়ে শিশুকে চকলেট দেয়ার প্রলোভন দেখিয়ে মন্দিরের মধ্যে পর্দা টানানো একটি কক্ষে নিয়ে যায়।

পরে ওই শিশুটিকে চকলেট খাওয়ায়ে  তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান। এ সময় শিশুটি চিৎকার করলে বিষয়টি ফাঁস হয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন জড়ে হয়ে পুরোহিতকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে কোতয়ালী থানা পুলিশ পুরোহিত প্রকাশ ব্যানার্জীকে আটক করে।

এ ঘটনায় আজ সকালে শিশুটির মা বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় একটি মামলা  করেছেন।

স্থানীয়রা জানান, পুরোহিত প্রকাশ দীর্ঘদিন ধরে ওই শিশুকে ধর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে আসছে। ১৬ই এপ্রিল দুপুরে মন্দিরের মধ্যে একটি কক্ষের মধ্যে নিয়ে সে শিশুটিকে সম্পূর্ণ বিবস্ত্র করে জোরপূর্বক ধর্ষণের চেষ্টা চালালে তার চিৎকারে স্থানীয়রা টের পায়। পরে এলাকাবাসী মন্দিরের ওই কক্ষ থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে এবং পুরোহিত প্রকাশ ব্যানার্জীকে গণপিটুনি দেয়। পরে জনতার খবরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই পুরোহিতকে গ্রেপ্তার করে। এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে কোতয়ালী থানায় মামলা করেছেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ডাঃ মোঃ নূরুল আমীন

২০১৯-০৪-১৮ ০২:৫৯:২৭

জৈবিক চাহিদা কোন ধর্ম, বর্ণ,গোত্র মানে না! পুরোহিত, কাজি, মাদ্রাসার অধ্যক্ষ বা ইমাম, কৃষক, চাপরাশি, পিয়ন সকল মানব সন্তানের‌ই একটি জৈবিক বিষয় আছে। এটা নিয়ন্ত্রণ করা মানুষের পক্ষে খুব একটি স্বাভাবিক বিষয় নয়। যে কারণে আমাদের ইসলাম ধর্ম মতে যার বিবাহ করার সামর্থ্য নাই, সে যেন ঘনঘন রোজা রোজা পালন করে। তাহলে তার পক্ষে রিপুকে দমন করে রাখা সম্ভব হবে। মাদ্রাসার অধ্যক্ষ বলেন আর মন্দিরের পুরোহিত বলেন, জৈবিক চাহিদা সবার ভিতরেই কোন এক সময় মাথাচাড়া দিয়ে উঠবেই! সেটাকে দমিয়ে রাখা বা অবদমন করাই হল বিচক্ষণতা আত্মসংযম যা অধিকাংশের মধ্যেই থাকে না। এখানে এই পুরোহিতকে ভিন্ন ভাবে না দেখে বা ধর্মীয় উস্কানির দিকে অঙ্গুলি নির্দেশ না করে ফৌজদারি কার্যবিধির অধীনে কৃত অপরাধ হিসেবে বিচার্য বিষয় হিসেবে দেখলেই উত্তম হবে। এটাই আমার মতামত।

আরিফ

২০১৯-০৪-১৭ ০৭:২৬:০৮

সবাই যখন করছে তখন পুরোহিত আর বাদ যাবে কেন..!! এটা হচ্ছে পুরো জাতির অবক্ষয়ের ফলাফল

নিলুফার নাহার

২০১৯-০৪-১৭ ১৯:২১:২৪

আপনার সাথে আমিও একমত। ধর্ষকের কোন ধর্ম, প্রতিষ্ঠান বা শ্রেণী নাই। দুঃখ লাগে তথাকথিত প্রগতিবাদী বুদ্ধিজীবিরা যারা শিক্ষিত তাদের এক চোখামি। শুধু শাদ্রাসা তাদের লক্ষ্য বস্তু আর কেউ না। গত ২ সপ্তাহের খবরেরর কাগজ দেখুন আরো কত ঘটনা গটেছে। এদের ভাবখানা মাদ্রাসা ছাড়া অন্যদের বেলায় এটা কিছুই না।

Badsha Wazed Ali

২০১৯-০৪-১৭ ১৭:২৮:৩৬

ধর্ষণ চেষ্টায় দায়ি করা হয়েছে যশোরের মন্দিরের এক পুরোহিত কে। খবরটি নিশ্চয় দুঃখজনক। কোন মাদ্রাসার শিক্ষক যদি এমন ঘটনা ঘটায়, সেটা যেমন বেদনাদায়ক, এটিও তেমন। আমার কাছে কোন পার্থক্য নেই। আমি অপরাধ বিবেচনা করবো, ধর্ম নয়। তবে, আমাদের দেশে কিছু ইসলাম ধর্মে অবিশ্বাসী আছেন, তারা কোন হুজুরের অপরাধকে পুরো মাদ্রাসা শিক্ষার উপরে চাপিয়ে দেয়। এবং মাদ্রাসা শিক্ষা এখনিই বন্ধ করতে চান। আজকের এই খবর পড়ে সে সব বুদ্ধিজীবী, পুরো মন্দির ব্যাবস্থা নিষিদ্ধ করতে চান কিনা জানতে পারলে ভাল হতো।

আপনার মতামত দিন

‘সিনিয়র শিল্পীদের অভিনয়ের সুযোগ কমে যাচ্ছে’

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ভিপি নুরের ইফতারে ছাত্রলীগের বাধা, রেস্টুরেন্টে তালা

বাংলাদেশ দলের নিউক্লিয়াস

সৌভাগ্যের কার্ডিফে টাইগারদের বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু

ছোট নৌকায় দ্বিগুণ যাত্রী তুলে ভাসিয়ে দেয় সাগরে

রাজনৈতিক দলে না থাকলেও ঐক্যফ্রন্টের সঙ্গে থাকবো

ওদের কান্নার যেন শেষ নেই

দ্বিতীয় মেঘনা, গোমতী সেতুর উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

নরসিংদীতে অভাবের তাড়নায় দুই কন্যাকে হত্যা করেছে বাবা

একদিনে দুই ইফতার

মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ প্রয়োজন বৃহত্তর ঐক্য

ফ্রান্সের লিওনে পার্সেল বোমা বিস্ফোরণ আহত ১৩

কসাইখানা থেকে কলেজে মহিষ...

নগরীতে ‘বাস বে’ করা একটি বড় চ্যালেঞ্জ: ডিএনসিসি মেয়র

জীবন উৎসর্গ করা ১২ বাংলাদেশি শান্তিরক্ষীর প্রতি জাতিসংঘের সম্মাননা

লোকসভায় বেড়েছে মুসলিম এমপি