হত্যার আগে নুসরাতকে ‘ছাদে ডেকে নিয়ে যান’ পপি

অনলাইন

অনলাইন ডেস্ক | ২০ এপ্রিল ২০১৯, শনিবার, ১০:৪১
হত্যার আগে মাদরাসা ছাত্রী নুসরাতকে ছাদে ডেকে নিয়ে গিয়েছিল অধ্যক্ষের ভাগ্নি পপি। আদালতে দেয়া জবানবন্দিতে একথা স্বীকার করেছে সে।
গতকাল পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন-পিবিআইয়ের চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ সুপার মোহাম্মদ ইকবাল গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি জানান, শুক্রবার বিকেল ৪টায় পপিকে ফেনীর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শরাফ উদ্দিন আহম্মেদের আদালতে হাজির করা হয়।

আদালতের কাছে দায় স্বীকার করে তিনি ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন পপি। প্রায় সাড়ে ৫ ঘণ্টা পর রাত সাড়ে ৯টায় তার জবানবন্দি দেওয়া শেষ হয়।
পিবিআই কর্মকর্তা ইকবাল বলেন, পপি ঘটনার দিন সকালে পরীক্ষা কেন্দ্র থেকে নুসরাতকে ছাদে ডেকে নেন। পপি এ হত্যার ঘটনার সঙ্গে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত ছিলেন।

এর আগে এ মামলায় চার আসামি নুসরাত হত্যার সঙ্গে সম্পৃক্ততার কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেন। তারা হলেন- মামলার এজহারভুক্ত আসামি নূর উদ্দিন, শাহাদাত হোসেন শামীম, আবদুর রহিম শরীফ ও হাফেজ আবদুল কাদের।
এদিকে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি জাবেদ হোসেনকে একই বিচারক আরও তিন দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছেন। সাত দিনের রিমান্ড শেষে পুলিশ তাকে আরও পাঁচ দিনের রিমান্ডে চাইলে আদালত তিন দিন মঞ্জুর করে আদেশ দেয়।।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Nixon pandit

২০১৯-০৪-২০ ০০:১৩:৫৬

একে পাথর ছুঁড়ে হত্যা করা হোক ।

Kazi

২০১৯-০৪-১৯ ২৩:৩৫:৩৩

মামার যৌন হয়রানিতে ভাগ্নী সমর্থক। তাই প্রতিবাদ কারিকে পুড়িয়ে মারল। নিষ্ঠুর ভাবে খুনের আসামি । ফাঁসি তো অতি সহজ সাজা। বরং একই পদ্ধতি তে এদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা উচিত ।

আপনার মতামত দিন

প্রিয়তি ধর্ষণ চেষ্টা, তদন্তে ইন্টারপোল!

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীতে জাতীয় সংসদের বিশেষ আয়োজন

প্রার্থী হচ্ছেন না খালেদা জিয়া

সাকিব আবার শীর্ষে

দোষী ৬৭ জন ১৮ থেকে ২৩ তলা অবৈধ

নারী হতে বাংলাদেশির অস্ত্রোপচার গুজরাটে

সিমলায় আটকে আছে তদন্ত!

অনির্বাচিত সরকারকে গ্রহণ করার মূল্য দিচ্ছে জনগণ

ট্রেনের আগাম টিকিট বিক্রি শুরু অনলাইনে চরম ভোগান্তি

চাল আমদানিতে শুল্ক কর বাড়িয়ে দ্বিগুণ

বান্ধবীর বাসায় আশিকের মৃত্যু নানা রহস্য

সিলেটের ৫ গুণীজনকে রত্ন ফাউন্ডেশনের সংবর্ধনা

রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসনে বিশ্বাঙ্গনে একত্রে লড়বে দুই দেশ

অধ্যক্ষ ফের দুই দিনের রিমান্ডে

ঢাকার ৮৪ ভাগ বহুতল ভবনই ত্রুটিপূর্র্ণ

পা হারানো রাসেলকে বাকি টাকা দেয়নি গ্রীনলাইন তীব্র ক্ষোভ হাইকোর্টের