৪ দিনেও উদ্ধার হয়নি কালা মিয়ার কাটা পা, গ্রেপ্তার হয়নি হোতারা

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, ব্রাহ্মণবাড়িয়া থেকে | ২২ এপ্রিল ২০১৯, সোমবার, ২:২৮ | সর্বশেষ আপডেট: ২:৩০
ঘটনার শিকার কালা মিয়া ও হোতা আবুল বাশার
৪ দিনেও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বাঞ্ছারামপুরের কালা মিয়ার কেটে নেয়া পা-টি উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। বর্বরোচিত এ ঘটনার নায়ক উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি আবুল বাশার ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের কেউই গ্রেপ্তার হয়নি। এ ঘটনায় আবুল বাশারকে প্রধান আসামী করে ১৪ জনের নামে মামলা হয়েছে। এছাড়া অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে আরো ১৫-২০ জনকে।

ঘটনার শিকার কালা মিয়ার স্ত্রী সালমা আক্তার বাদী হয়ে গতকাল (রোববার) সকালে এ মামলাটি দায়ের করেন। এদিকে ঘটনার নায়ক আবুল বাশারকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়েছে।

শুক্রবার উপজেলার রূপসদী গ্রামে পূর্ববিরোধের জের ধরে আবুল বাশার ও তার সহযোগীরা কালা মিয়া (৪৫) এবং তার ছেলে বিপ্লব মিয়াকে (১৯) বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে টেঁটাবিদ্ধ করে। শতশত লোকের সামনে তারা এ ঘটনা ঘটায়।  কালা মিয়া মাটিতে লুটে পড়লে ধারালো দা দিয়ে তার ডান পায়ের হাঁটু থেকে নিচ পর্যন্ত কেটে নিয়ে যায় বাশার ও তার সহযোগীরা।

এ সময় কালা মিয়ার ছেলে বিপ্লবের দুই পায়ের রগও কেটে দেয় তারা। তাদেরকে উদ্ধার করে প্রথমে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদেরকে ঢাকায় প্রেরণ করেন।

এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে কেটে নেয়া পা উদ্ধারে অভিযান শুরু করে বাঞ্ছারামপুর থানা পুলিশ এবং জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ জনকে আটক করে। বাঞ্ছারামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সালাহ উদ্দিন চৌধুরী জানিয়েছেন, বিশাল এলাকা। পা কেটে কোথায় রেখেছে, সেটি তারা ট্রেস করতে পারছেন না। বাশারকে ধরার জন্যেও চেষ্টা করছেন তারা।
 
এদিকে শনিবার রাতে বাঞ্ছারামপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি হাসান ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক আল আমিন স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে আবুল বাশারকে দল থেকে বহিষ্কারের কথা জানান। এতে বলা হয়, স্বেচ্ছাসেবক লীগ বাঞ্ছারামপুর উপজেলা শাখার সহ সভাপতি আবুল বাশার সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত থাকার অভিযোগের ভিত্তিতে তার সহ-সভাপতি পদ থেকে বহিষ্কার ও প্রাথমিক সদস্য পদ বাতিল করা হলো।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ফয়েজ

২০১৯-০৪-২৩ ০৫:৪৭:৫৬

কোন মতামতই দিব না।

FOYEZ AHMED

২০১৯-০৪-২২ ০৭:০৪:৩৪

আমারা কি স্বাধীন দেশে বসবাস করছি নাকি পরাধীনতার লৌহ কপাটে আমরা এখনো বন্ধি রয়েছি। আমরা কি মানব ভরপুর লোকালয়ে বসবাস করছি নাকি হিংস্র জানোয়ারে ভরপুর জংগলে বসবাস করছি। এ জানোয়ার গুলো দিন দিন আরও হিংস্রতার ভয়াবহ রুপ ধারন করতেছে এর কি কোনো প্রতিকার নেই

আপনার মতামত দিন

এপ্রিল টোয়েন্টি ফাইভকে হারিয়ে আবাহনীর ইতিহাস

সন্ত্রাসবাদ মোকাবিলায় মানবাধিকার ও আইনের শাসন গুরুত্বপূর্ণ

সিরিজে সমতা ফেরালো এইচপি টিম

আপিল শুনানি এ বছরেই: আইনমন্ত্রী

২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত ১৬২৬ জন হাসপাতালে ভর্তি

জন্মাষ্টমী শোভাযাত্রার নিরাপত্তায় ডিএমপির ১০ নির্দেশনা

মাদারীপুরে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ, আহত ৩০

সরষের মধ্যে ভূত থাকতে নেই: হাইকোর্ট

কাশ্মীর ইস্যু ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়

‘ঝুঁকি নিয়েই রোহিঙ্গাদের প্রত্যবাসন শুরু করতে হবে’

ন্যায় বিচার এই দেশ থেকে নিরুদ্দেশ হয়ে গেছে: রিজভী

মিঠামইনে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতির লোকজনের হামলা, নিহত ১

খালেদার মুক্তির জন্য রাজপথে আন্দোলন করতে হবে-দুদু

খেলোয়াড় ও দর্শকদের প্রিয় কোচ হতে চান ডমিঙ্গো (ভিডিও)

ঢাকায় ডেঙ্গুতে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

ছোট ভাইয়ের হাতে বড় ভাই খুন