গুজরাট মডেলেই বারবার জয় ছিনিয়ে নিচ্ছেন মোদি

এক্সক্লুসিভ

মানবজমিন ডেস্ক | ২৪ মে ২০১৯, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ২:০৫
নরেন্দ্র মোদির হিন্দুত্ববাদের জয়কে মোকাবিলা করতে এবার নতুন কোনো অস্ত্র হাতে নেয়া জরুরি হয়ে পড়েছে ভারতের বিরোধী দলগুলোর জন্য। ভারতীয় রাজনীতিতে নরেন্দ্র মোদি এখন সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তি। এককালে গুজরাটে তিনি যে সফলতা দেখিয়েছিলেন তা এখন জাতীয় পর্যায়েও দেখাচ্ছেন। আর এ সফলতার কৃতিত্বের দাবিদার তিনি একাই। দেশটির রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা মনে করছিলেন, এবার নরেন্দ্র মোদির পক্ষে আগের মতো শক্তিশালীভাবে ফিরে আসা সম্ভব হবে না। কিন্তু এখন সেসব ভবিষ্যদ্বাণী ভুল প্রমাণিত হয়েছে। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মধ্যে সব সময়ই ব্যাপক সমালোচিত ছিলেন মোদি। আর এ জন্য তারা মোদির রাজনৈতিক আদর্শ ও ধরনকে দায়ী করতেন। কিন্তু এ নির্বাচনের ফলাফলের পর প্রায় সকল রাজনৈতিক পণ্ডিতই একমত হবেন যে, মোদি আর দশজনের মতো রাজনীতিবিদ নন। তিনি রাজনীতির ধারণাই পাল্টে দিয়েছেন। আজকে বিজেপির যে জয় তার পূর্ণ কৃতিত্ব নরেন্দ্র মোদির। তবে হ্যাঁ, গণমাধ্যমের কিছুটা ভূমিকা রয়েছেই। গণমাধ্যমই নরেন্দ্র মোদিকে এমন শক্তিশালী চরিত্র হিসেবে আবির্ভূত হতে সাহায্য করেছে। গত বছরের ডিসেম্বরে বিজেপি উত্তরাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে হেরে গেলে তখন অনেকেরই মনে হয়েছিল বিজেপি বড় ধরনের ধাক্কা খেয়েছে। মধ্য প্রদেশ, রাজস্থান ও ছত্রিশগড়ে হারার পরই মোদি তার শাসনের গিয়ার চেঞ্জ করে দিলেন। তিনি বুদ্ধিমান বলেই শুধু সরকারের অর্জনগুলোর দিকে ফোকাস না করে জাতীয়তাবাদের একটি জোয়ার সৃষ্টি করলেন। তার প্রধান অস্ত্র হয়ে উঠলো রাষ্ট্রবাদ। ২০০২-এ মোদি যখন গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচিত হলেন তখন তিনি মাত্র ক্ষমতার রূপ দেখেছেন। অনেক সমালোচকই বলেন যে, তার এ জয়ের পেছনে কাজ করেছে ২০০২-এর দাঙ্গা। কিন্তু ২০০৭ ও ২০১২ সালে পরপর তার নির্বাচিত হওয়া প্রমাণ করে যে, তিনি শুধু বিভেদ নয় জনগণের সঙ্গে তার ছিল গভীর সমপর্কও। মোদি জানতেন গুজরাট দাঙ্গার দাগ নিয়ে তিনি বেশিদূর যেতে পারবেন না। তাই তিনি তার রাজনীতির প্রধান হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করলেন জাতীয়তাবাদকে। তিনি তার গুজরাট মডেলকে সফলভাবে জাতীয় পর্যায়ে কাজে লাগালেন। অর্থনৈতিকভাবে গত ৫ বছরে চরম ব্যর্থ বিজেপিকে তাই আবারো একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেতে বেগ পেতে হয়নি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

কুষ্টিয়ায় ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৭ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে

চাঁদাবাজির অভিযোগে সাবেক মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আটক

ইমরান-মোদির সঙ্গে সাক্ষাত করবেন ট্রাম্প

চট্টগ্রাম নির্বাচন অফিসের কর্মচারিসহ আটক ৩

ইতালিতে বাংলাদেশী যুবকের সততা

সেই নবজাতকের স্থান হচ্ছে ছোটমনি নিবাসে

আপত্তিকর ভিডিও নিয়ে বিভ্রান্ত না হওয়ার অনুরোধ মেহজাবীনের

গাজীপুরে বাসচাপায় নিহত ২

পার্লামেন্ট স্থগিত নিয়ে বৃটিশ সুপ্রিম কোর্টের রায় আজ

৫ মাসের মধ্যে ইসরাইলে আজ আবার নির্বাচন

পাকিস্তানে ইসলাম অবমাননার অভিযোগে হিন্দু শিক্ষক গ্রেপ্তার, মন্দিরে হামলা

বন্ধুদের ডেকে এনে প্রেমিকাকে গণধর্ষণ

‘আমাদের নাটকের গল্পে বেশ পরিবর্তন এসেছে’

প্রাচীরে মোটরসাইকেলের ধাক্কা, ইউপি সদস্য নিহত

সৌদি থেকে এক কাপড়ে ফিরলেন ১৭৫ জন

এনআরসি’র নামে আসামে যা হচ্ছে তা বিপজ্জনক