ময়মনসিংহে শিশুকে ধর্ষণচেষ্টা, যুবক আটক

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার, ময়মনসিংহ থেকে | ১০ জুন ২০১৯, সোমবার, ৩:০২
ময়মনসিংহে শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টাকালে রোমান (৩৫) নামে এক যুবককে আটক করে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা।  আজ সোমবার সকালে এ ঘটনায় শিশুটির বাবা মুরাদ হোসেন বাদি হয়ে  কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

কোতোয়ালি মডেল থানার ডিউটি অফিসার নাদিরা পারভীন জানান, রোববার সন্ধ্যায় নগরের সানকিপাড়ার ক্যান্টনমেন্ট এলাকায় এমপি চেকপোস্টের পাশের একটি গলিতে শিশুটিকে ফুসলিয়ে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় ওই যুবক।
 
এ সময় স্থানীয়রা টের পেয়ে তাকে আটক করে গণপিটুনি দেয়। পরে পুলিশে খবর দিলে তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে তাকে আটক করে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Md. Afzal Hussain.

২০১৯-০৬-১০ ১৬:১০:২৪

ধরপাকড়ের পাশাপাশি সুনাগরিক তৈরীর কয়েক হাজার কোটি টাকার মহাপ্রকল্প গ্রহণ করা হউক যাতে স্রষ্টার বলবৎ বিধি -বিধান স্বংক্রীয়ভাবে স্বাভাবিক গতিতে মানুষের সমাজে বাস্তবায়িত না হতে থাকে । নাগরিক শয়তানের নিযুক্তি পেয়ে গেলে আর কিছু করার থাকবে না সব কিছু নাগালের বাহিরে চলে যাবে । যেমন ধর্ষক,, চাদাবাজ, প্রতারক ,ঘোষকুর ,মাদক ব্যবসায়ী , জোরপূর্বক অন্যের সম্পদ লুণ্ঠণকারী, খাদ্যে ভেজালপ্রদানকারী, মানবতা , রাষ্ট্র বিরুধী ও জঙ্গী কর্মে আসক্ত ব্যক্তি গোষ্ঠিরা তাদের কাজ সম্পাদনে বেপরোয়া জেল জুলুম ফাসি পুলিশ রেব কিছুরই ভয় তাদের নেই তাদের লক্ষ্য তাদের উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন । মানুষ যখন শয়তানের নিযুক্তি দয়াময়ের বিধি মোতাবেক পেয়ে যায় সাথে সাথে তার আত্মার লাগাম শয়তানের হাতে চলে ষায় । শয়তান যেভাবে চায় ঐভাবে মানবাত্মা পরিচালিত হয়। সুরা যুখরুফর আয়াত ৩৬ : যে ব্যক্তি দয়াময় আল্লাহর স্মরণে বিমুখ হয় আমি তাহার জন্য নিয়োজিত করি এক শয়তান, অতঃপর সেই হয় তাহার সহচর । সুরা যুখরুফর আয়াত ৩৭ : শয়তানরাই মানুষকে সৎপথ হইতে বিরত রাখে অথচ মানুষ মনে করে তাহারা সৎপথে পরিচালিত হইতেছে । ওহে জনগণের ৯২% শতাংসের অধিকমুসলিম ও ৮% শতাংসের কম অমুসলিম নাম বহনকারী নাগরিকের সরকার ! মুসলিম জাতি পৃথিবীতে সৃষ্ট শেষ জাতি । দ্বীনি বিধান মোতাবেক আমরা পূর্ণাঙ্গ দ্বীনি শিক্ষা প্রশিক্ষণ মানব রচিত আধুনিক শিক্ষার সঙ্গে সমন্বয় করে পাথিব জীবন যাপন করা থেকে বঞ্চিত হওয়ায় এবং রাষ্ট্রীয়ভাবে কোন পদক্ষেপ গৃহিত না হওয়ায় সর্বোপরী সুনাগরিক হওয়ার দায়িত্ব নাগরিকের উপর অর্পিত হওয়ায় এবং অপরাধী ধরার প্রত্যক্ষ দায়িত্ব সরকার গ্রহণ করায় আর প্রত্যক্ষভাবে অপরাধী ধরা হচ্ছে কিন্তু নাগরিকের অপরাধপ্রবণতা বন্ধের প্রত্যক্ষ কোন উদ্যোগ গ্রহণে সরকার নীরব শুধু গদিতে বসে সুনাগরিক হওয়ার জ্বালাময়ী ভাষণ সরকারের পক্ষ থেকে ঘোষিত হয় ।আমরা মুসলিম হিসাবে পূর্ণাঙ্গ সময় পার্থিব জীবন যাপন করিতে আদিষ্ঠ । পূর্ববর্তী নবী রাসুল আলাইহি ওয়া সাল্লামদেরকে স্থানীয়ভাবে বিভিন্ন গোত্রের নিকট প্রেরণের মাধ্যামে মুসলিম জাতি সৃষ্টি করা হত আর এই পদ্দতি ঈসা আলাইহি ওয়া সাল্লাম পর্যন্ত চালু ছিল।

আপনার মতামত দিন

‘সেগুলোতে কাজ করার আগ্রহ পাই না’

পদ হারালেন ওমর ফারুক

১০ বছর আমার চেহারা ভালো ছিলো এখন খারাপ হয়েছে: ওমর ফারুক চৌধুরী

যুবলীগের প্রস্তুতি কমিটি গঠন

সিঙ্গাপুরে রাজার হালে ক্যাসিনো ডন সাঈদ

মোহাম্মদপুরের সুলতানের পতন

ঢাবি অ্যালামনাই এসোসিয়েশনে কেন যেতেন জি কে শামীম

সম্রাটের অস্ত্র ভাণ্ডারের খোঁজ মিলেছে

পাক-ভারত সীমান্তে গুলির লড়াই

মেননের বক্তব্যে তোলপাড়

ঢাবিতে ফের ছাত্রদলের ওপর হামলা

খালেদা জিয়াকে দেখতে যাবেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা

মন্ত্রী হলে কি এ কথা বলতেন?

অবৈধ উপায়ে নির্বাচনে জয়ীদের কোনো বৈধতা থাকে না

সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে তলব

ওয়াসার পানি সরাসরি পানের নিশ্চয়তা দিতে হবে