পুড়িয়ে দেয়ার ২২দিন পর মারা গেলেন কটিয়াদীর রাজন

অনলাইন

কটিয়াদী (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি | ১০ জুন ২০১৯, সোমবার, ৩:৫৮
কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে এক সন্তানের জনক আবদুর রহিম রাজন (২৭) পুড়িয়ে দেয়ার ২২ দিন পর মারা গেছেন। সোমবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। নিহত রাজন পৌর সদরের পূর্বপাড়া মহল্লার প্রবাসী মোস্তফা মিয়ার ছেলে।
 
জানা যায়, গত ১৯শে মে রাতের আধাঁরে কতিপয় দুর্বৃত্ত থানা থেকে ৫০ গজ দূরে সাবরেজিস্ট্রি অফিসের পিছনের গলিতে রাজনের গায়ে তরল দাহ্য পদার্থ ঢেলে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা চালায়। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কটিয়াদী হাসপাতালে পরে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।

এ ঘটনায় রাজনের মামা মামুনুর রশিদ নয়ন তিনজন চিহ্নিত ও ৫ জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে আসামী করে কটিয়াদী থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। কিন্তু আজ পর্যন্ত ঘটনার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন হয়নি।

রাজনের বড় মামা মানিক মিয়া ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, রাজন চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ সোমবার দুপুরে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। তার মৃত্যুর সংবাদটি দ্রুত এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

আনিস উল হক

২০১৯-০৬-১০ ১০:১২:৫৩

অভ্যন্তরীন কোন্দল-হানাহানি মুক্ত কোন ধর্ম কি আর পৃথিবীতে পাওয়া যাবে কোনদিন?

Badal islam

২০১৯-০৬-১০ ০৯:১৫:৪৪

দুনিয়াতে এর সুষ্ঠ বিচার কেউ দিতে পারবে বলে আমার মনে হয়না? তবে এর সুষ্ঠ বিচার পরকালে আল্লাহ্তায়ালা অবশ্যই করবেন আমি আশাবাদী আমীন।

আপনার মতামত দিন

ব্যাংক নোটের আদলে টোকেন ব্যবহার দণ্ডনীয়

পুলিশ এতদিন কি করছিল?

সিরিজ বোমা হামলা: ৫ জেএমবি সদস্যের কারাদণ্ড

কুষ্টিয়ায় মাদক মামলায় ৫ জনের যাবজ্জীবন

বিচারকদের ফেসবুক ব্যবহারে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনা

পাষণ্ড ছেলে...

যমুনায় নৌকা ডুবি, নিহত ১

ফাইনালে অনিশ্চিত রশিদ খান

ঢাবিতে ছাত্রদল-ছাত্রলীগের অবস্থান, স্লোগান, উত্তেজনা

আগস্টে ইন্টারনেট সংযোগ বেড়েছে ২০ লাখ: বিটিআরসি

সৌদি আরবে হামলা থামানোর প্রস্তাব হুতির, সমর্থন জাতিসংঘের

‘জাবিতে ভিসিবিরোধী আন্দোলন, সাবেক ভিসির এজেন্ডা’

জাবি’র ভর্তি পরীক্ষা শুরু, ২০ কোটি টাকার ফরম বিক্রি

পরিস্কার পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের মানবেতর জীবন যাপন

‘দেশটা জুয়াড়িদের দেশ হয়ে গেছে’

মাকে বাঁচাতে সন্তানের আকুতি