ধোনির পর গেইলের আবেদন নাকচ

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১১ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার
মহেন্দ্র সিং ধোনির গ্লাভস বিতর্ক শেষ হতে না হতে এবার জানা গেল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওপেনার ক্রিস গেইলের আবদার। ক্যারিবিয়ান বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান ক্রিস গেইল ‘ইউনিভার্স বস’ লোগো লাগানো ব্যাট নিয়ে বিশ্বকাপে খেলতে চেয়েছিলেন। কিন্তু ক্রিকেট সর্বোচ্চ সংস্থা আইসিসি তার এই আবেদন নাকচ করে দেয়। আইসিসি থেকে জানানো হয়, ৪৫ দিন আগে গেইল ইউনিভার্স বস লোগো লাগানো ব্যাট নিয়ে খেলার জন্য আইসিসিকে আবেদন করে। পরে তা নাকচ করে দেয় আইসিসি। সেটা সম্ভাবত আইপিএলের পর। আইসিসির নীতিমালা অনুযায়ী, আন্তর্জাতিক আসরে কোনো খেলোয়াড় তার ব্যক্তিগত বার্তা কিংবা লোগো তার জার্সি অথবা ক্রিকেট সরঞ্জামে ব্যবহার করতে পারবে না। গত ৫ই জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ম্যাচে ভারতের সেনাবাহিনীর ‘বলিদান’ চিহ্ন আঁকা কিপিং গ্লাভস হাতে মাঠে নেমেছিলেন উইকেটরক্ষক মহেন্দ্র সিং ধোনি। যা নিয়ে জোর বিতর্ক হয়। আইসিসি প্রথমে ধোনির গ্লাভস থেকে ‘বলিদান’ চিহ্ন সরিয়ে নেয়ার জন্য ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিসিআই) অনুরোধ জানায়। কিন্তু বিসিসিআই তাতে রাজি না হয়ে উল্টো ধোনির ওই চিহ্নযুক্ত গ্লাভস ব্যবহারের অনুমতি চেয়ে আইসিসি’র কাছে আবেদন করে। কিন্তু ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা আইসিসি ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের আবেদন নাকচ করে দেয়। এবং আইসিসি জানায়, ধোনি এই সেনা প্রতীক লাগানো গ্লাভস পরে খেলতে পারবে না। তাতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে সেনা প্রতীকহীন গ্লাভস নিয়ে মাঠে নামেন ধোনি।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

ছাত্রদলের ভোট শুরু

অভিযানে যুবলীগ নেতা খালেদের বাসায় যা পাওয়া গেল

পার্লামেন্ট স্থগিত নিয়ে রায় দেয়ার ক্ষমতা নেই আদালতের: সরকার পক্ষ

কী হবে যুবলীগের ট্রাইব্যুনালে?

দেশের অর্থনীতিতে বেক্সিমকোর অবদান অনস্বীকার্য: টিআইবি

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনকারীদের ওপর হামলা

শেখ হাসিনা নরেন্দ্র মোদি বৈঠকে এনআরসি নিয়ে আলোচনা হবে

অর্থশাস্ত্রকে সামাজিক বিজ্ঞানে পরিণত করতে হলে পুনর্বিন্যাস জরুরি

নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১, লাশ দাফনে বাধা

পিয়াজের দাম আর কত বাড়বে?

ডেঙ্গুতে ২৪ ঘণ্টায় নতুন ভর্তি ৫৩৬

৯ আসামির বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা

পৈতৃক সম্পত্তি রক্ষায় মাকসুদা বেগমের আকুতি

তারা টকশোর অ্যাংকর নাকি অনভিজ্ঞ বক্তা?

‘টাকা দিয়ে ছাত্র প্রতিনিধি এর নাম কি রাজনীতি’

পার্লামেন্ট স্থগিত নিয়ে রায় দেয়ার ক্ষমতা নেই আদালতের: সরকার পক্ষ