সাংবাদিক মিলটন কারাগারে

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, খুলনা থেকে | ১২ জুন ২০১৯, বুধবার
মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন (এমইউজে) খুলনার সদস্য, খুলনা প্রেস ক্লাবের সাবেক সহ-সভাপতি দৈনিক খুলনাঞ্চল সম্পাদক ও প্রকাশক মিজানুর রহমান মিলটনকে মানি লন্ডারিং মামলায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গত সোমবার বেলা দু’টার দিকে নগরীর অভিজাত সিটি ইন হোটেল থেকে তাকে সিআইডি পুলিশের একটি দল জোর করে তুলে নিয়ে যায়। পরে নড়াইল জেলার কালিয়া থানায় সোপর্দ করা হয় এবং সিআইডির পরিদর্শক অনুপ বাদী হয়ে মানি লন্ডারিং ঘটনায় মামলা দায়ের করেছে। মঙ্গলবার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় বিএফইউজে, এমইউজে, খুলনা প্রেস ক্লাব নেতৃবৃন্দসহ কর্মরত সাংবাদিকরা তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা প্রকাশ করেছেন। তারা বলেছেন, চলন্তিকা যুব সোসাইটি নামক একটি বেসরকারি সংস্থার অর্থ আত্মসাতকে কেন্দ্র করে একটিমহল খুলনাঞ্চল সম্পাদক মিজানুর রহমান মিলটনকে দীর্ঘদিন ধরে একের এক মামলা দিয়ে হয়রানি করছে।
পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, খুলনাঞ্চল সম্পাদক মিজানুর রহমান মিলটন দুপুরে একটি ব্যাংকে ব্যক্তিগত কাজে যান। সেখানে থাকা অবস্থায় তাকে সিআইডির এক কর্মকর্তা ফোন করে দেখার করার আগ্রহ প্রকাশ করেন।
মিলটন দুপুর ২টার দিকে হোটেল সিটি ইনে গেলে সাদা পোশাকের সিআইডি পুলিশ তাকে জোর পূর্বক তুলে নিয়ে যায়। ওদিকে বিকেল পর্যন্ত মিলটনের মোবাইল সংযোগ বন্ধ থাকায় তার স্বজন ও সহকর্মীদের উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েন। বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করেও তাঁর সন্ধান না মেলায় আতংকগ্রস্ত হয়ে পড়েন। পরে সহকর্মীরা বিভিন্ন আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে যোগাযোগ করেন। এক পর্যায়ে তারা জানতে পারেন- হোটেল সিটি ইন থেকে তাকে তুলে নেয়া হয়েছে। সন্ধ্যার দিকে নড়াইল কালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মিজানুর রহমান মিলটনসহ তিনজনকে সিআইডি পুলিশ তাদের কাছে হস্তান্তর করেছে বলে নিশ্চিত করেন। কালিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. রফিকুল ইসলাম জানান, সন্ধ্যা ৭টার দিকে সিআইডি মিজানুর রহমান মিলটন নামের একজনকে থানায় নিয়ে আসেন। তার বিরুদ্ধে মানি লন্ডারিংয়ের মামলা হয়েছে। সিআইডির পরিদর্শক অনুপ বাদী হয়ে ১৬ জনের নামে মামলা দায়ের করেন। এরমধ্যে চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তাদেরকে রিমান্ডের আবেদন করে আদালতের মাধ্যমে তাকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। মামলাটি করছে সিআইডির অলোক।
২০১৮ সালে ১৫ই এপ্রিল নড়াইলের কালিয়া উপজেলায় ‘চলন্তিকা যুব সোসাইটি’ নামক একটি বেসরকারি সংস্থা বিভিন্ন পর্যায়ের প্রায় আট হাজার গ্রাহকের টাকা আত্মসাৎ করার ঘটনায় ১৫ই এপ্রিল সংস্থার চেয়ারম্যান খবিরুজ্জামানসহ আটজনের বিরুদ্ধে কালিয়া থানায় মামলা হয়। ওই মামলায় খুলনাঞ্চল সম্পাদক মো. মিজানুর রহমান মিলটনকে জড়ানো হয়। কিন্তু ঘটনার সাথে জড়িত না থাকায় পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করে মিলটনকে মামলা থেকে অব্যাহতি দিয়ে চূড়ান্ত প্রতিবেদন দাখিল করে।
এদিকে মিজানুর রহমান মিলটনকে গ্রেপ্তারের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও অবিলম্বে তাকে মুক্তি দেয়ার দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন বিএফইউজে’র সভাপতি রুহুল আমিন গাজী ও মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ, এমইউজে খুলনার সভাপতি মো. আনিসুজ্জামান, সহ-সভাপতি এহতেশামুল হক শাওন, সাধারণ সম্পাদক (ভারপ্রাপ্ত) আবুল হাসান হিমালয় ও কোষাধ্যক্ষ আব্দুর রাজ্জাক রানা, বিএফইউজে’র সাবেক সহ-সভাপতি ড. মো. জাকির হোসেন, সাবেক নির্বাহী সদস্য শেখ দিদারুল আলম ও এহতেশামুল হক শাওন, খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এম হাবিব ও সাধারণ সম্পাদক মো. সাহেব আলী। অপরদিকে বিএনপি নেতৃবৃন্দ এ ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে মিলটনের মুক্তি দাবি করেন।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সাইফউদ্দিনকে ছাড়াই কী খেলতে হবে?

রবিন হুডের শহরে বড় আশায় মাশরাফি

হঠাৎ বদলে গেল আয়াজের জীবন

পায়রা বিদ্যুৎকেন্দ্রে সংঘর্ষ চীনা শ্রমিক নিহত

আসামি সিরাজকে রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরণ

৩০ লাখ শহীদকে চিহ্নিত করার পরিকল্পনা নেয়া হচ্ছে: সংসদে প্রধানমন্ত্রী

শাজাহান খানের ভাইয়ের কাছে হারলেন নৌকার প্রার্থী

আন্দোলনে উত্তাল বুয়েট

কর্তৃত্ববাদী শাসনের অনিশ্চিত গন্তব্যে বাংলাদেশ

বাজেট নিয়ে অনেক প্রশ্নের উত্তর চান রুমিন ফারহানা

মসজিদে ঘোষণা দিয়েও ভোটার আনা যাচ্ছে না

২ স্কুলছাত্রীসহ ৫ কিশোরী ধর্ষিত

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য হলেন টুকু-সেলিমা

সরকার কৌশল করে খালেদা জিয়াকে জামিন দিচ্ছে না: মির্জা ফখরুল

দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের শাস্তি দেয়া হবে: কাদের

আমলা-কোহলির মধুর লড়াই