নুসরাত হত্যা

আসামি সিরাজকে রিমান্ড শেষে কারাগারে প্রেরণ

দেশ বিদেশ

ফেনী প্রতিনিধি | ২০ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:৪৩
ফেনীর সোনাগাজী মাদরাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির শ্লীলতাহানির মামলায় দুইদিনের রিমান্ডে থাকা সোনাগাজী ইসলামীয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদরাসার অধ্যক্ষ (সাসপেন্ড) সিরাজ উদ-দৌলাকে গতকাল বিকালে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম (সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট) মো. জাকির হোসাইন আসামি সিরাজ উদ-দৌলাকে জেলহাজাতে পাঠানোর আদেশ দেন। সন্ধ্যায় আদালত হাজতখানা থেকে সিরাজ উদ-দৌলাকে ফেনী জেলা কারাগারে নেয়া হয়। ফেনী আদালত (কোর্ট) পুলিশের পরিদর্শক (ওসি) গোলাম জিলানি জানান, মাদরাসার ছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির শ্লীলতাহানির মামলায় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) আসামি সিরাজ উদ-দৌলাকে দুইদিনের রিমান্ড শেষে আদালতে হাজির করে। পরে পিবিআই রিমান্ডের প্রতিবেদন আদালতে উপস্থাপন করলে আদালত আসামি সিরাজ উদ-দৌলাকে কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন। সোনাগাজী ইসলামীয়া ফাজিল (ডিগ্রি) মাদরাসার আলিম পরীক্ষার্থী নুসরাত জাহান রাফিকে গত ২৬শে মার্চ অধ্যক্ষ সিরাজ উদ-দৌলা তার অফিস কক্ষে ডেকে নিয়ে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এ ঘটনায় নুসরাতের মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে গত ২৭শে মার্চ সোনাগাজী মডেল থানায় অধ্যক্ষ সিরাজ উদ-দৌলাকে আসামি করে মামলা করে। এ মামলায় গত ২৭শে মার্চ পুলিশ অধ্যক্ষ সিরাজ উদ-দৌলাকে গ্রেপ্তার করে।
ওই মামলার পর সিরাজ উদ-দৌলার অনুসারীরা নুসরাতকে মামলাটি উঠিয়ে নেয়ার জন্য চাপ অব্যাহত রাখে। নুসরাত মামলাটি উঠিয়ে নিতে অপারগতা প্রকাশ করায় গত ৬ই এপ্রিল পরীক্ষার হল থেকে নুসরাতকে কৌশলে ডেকে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। পরে মাদরাসা ভবনের পার্শ্ববর্তী সাইক্লোন সেল্টারের তিন তলার ছাদে নিয়ে সিরাজ উদ-দৌলার সহযোগীরা নুসরাতের গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। পাঁচদিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে গত ১০ই এপ্রিল রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ন ইউনিটে মারা যায় নুসরাত। নুসরাতের হত্যা মামলাটি পিবিআই তদন্ত করে ১৬ জনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট জমা দিয়েছে।





এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা হচ্ছে

ব্যবস্থা চান বিশিষ্টজনরা

কেলেঙ্কারি-জালিয়াতিতে ডুবছে ২২ ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান

ত্রাণ-আশ্রয়ের জন্য ছুটছে মানুষ

ডেঙ্গু রোগীদের ৮০ ভাগই শিশু

ঢাকায় ডেঙ্গু পরিস্থিতি উদ্বেগজনক: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

‘জনগণকে নিয়ে গণঅভ্যুত্থান ঘটাতে হবে’

৪৮ ঘণ্টার মধ্যে বিএসটিআই পরিচালকের অপসারণ দাবি

ছেলেধরা সন্দেহে তিন জনকে পিটিয়ে হত্যা

রংপুর-৩ সদর শূন্য আসন নিয়ে আলোচনার ঝড়

পশ্চিমবঙ্গেও চালু হলো এনআরসি!

পর্নোগ্রাফি ও ব্ল্যাকমেইল নেশা সিলেটের এহিয়ার

গণপিটুনিতে জড়িতদের আইনের আওতায় আনা হবে

রাঘববোয়ালদের নিয়ে কাজ করতে সমস্যা হয়

মাদ্রাসাছাত্রীকে ইজিবাইক থেকে নামিয়ে ধর্ষণের পর হত্যা

ভারতের কৌশল ধ্বংস করছে সার্ককে