সিলেটে আলালের দায় স্বীকার

‘প্রেমের ফাঁদে ফেলে তরুণীকে ধর্ষণ করি’

শেষের পাতা

ওয়েছ খছরু, সিলেট থেকে | ১৬ জুলাই ২০১৯, মঙ্গলবার | সর্বশেষ আপডেট: ১:১১
সিলেটে এনজিও কর্মী তরুণী ধর্ষণের মূল হোতা আলাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করে ক্ষোভ ‘সামাল’ দিলো পুলিশ। এ ঘটনায় ফুঁসে উঠেছিল সিলেটের গোলাপগঞ্জ উপজেলা। ধর্ষণের মূল হোতা আলালকে গ্রেপ্তারের মাধ্যমে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করলো। তার আগে যখন এলাকার লোকজন সিলেট-জকিগঞ্জ সড়ক অবরোধ করেছিল তখন বিষয়টি নজরে আসে সিলেট পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের। তারা শনিবার বিকালে এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই তপন কুমারকে সাময়িক ক্লোজ করেন। ব্র্যাক-এর এনজিও কর্মী ২০ বছর বয়সী ওই তরুণীকে অপহরণ ও ধর্ষণের ঘটনায় তোলপাড় দেখা দেয় গোলাপগঞ্জে। স্থানীয়দের মধ্যে ছড়িয়ে পড়েছিল ক্ষোভও। এই ক্ষোভের পর সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন সরাসরি এতে হস্তক্ষেপ করেন। পুলিশ জানিয়েছে- এনজিও কর্মী আলাল হোসেনকে গ্রেপ্তারের পর সে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে। গতকাল পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের মুখে সে সব ঘটনা খুলে বলে। এ কারণে পুলিশ স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি গ্রহণের জন্য আদালতে প্রেরণ করে। সিলেটের আদালতে দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছে আলাল হোসেন। সে জানিয়েছে- ‘প্রেমে ফাঁদ পেতে সে ব্র্যাককর্মী তরুণীকে ধর্ষণ করি। একবার নয়, একাধিকবার ধর্ষণ করি’। আলাল গ্রেপ্তারের পর ক্ষোভ কমেছে গোলাপগঞ্জের মানুষের। পেশায় সিএনজি অটোরিকশা চালক আলাল হোসেন। গোলাপগঞ্জেই সে সিএনজি অটোরিকশা চালায়। তার বাড়ি লক্ষ্মীপাশা ইউনিয়নের বাউসি গ্রামে। পিতার নাম মছব্বির আলী। এনজিও কর্মী ওই তরুণী গোলাপগঞ্জের হেতিমগঞ্জের ব্র্যাককর্মী। তার বাড়িও পার্শ্ববর্তী হিলালপুর এলাকায়। কয়েক বছর ধরে ওই তরুণী ব্র্যাক-এ চাকরি করছেন। ঘটনা গত বৃহস্পতিবারের। ওইদিন বিকাল ৫ টার দিকে ব্র্যাক অফিস থেকে বের হওয়ার পর আলাল হোসেন তাকে জোরপূর্বক সিএনজি অটোরিক্সাযোগে নিয়ে যায়। উপজেলার কোনারচরের একটি পরিত্যক্ত ভবনে তাকে আটকে রেখে ধর্ষণ করে। পরদিন ওই তরুণীকে ছেড়ে দিলে বিষয়টি জানাজানি হয়। পরে ওই তরুণী গোলাপগঞ্জ থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। এদিকে- ঘটনার পরপরই এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যায় ধর্ষক আলাল হোসেন। পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালিয়েও পায়নি। আলাল গ্রেপ্তার না হওয়ায় ক্ষোভ বাড়ে এলাকায়। এ ঘটনায় মামলা নিতে পুলিশের গড়িমসির অভিযোগ এনে ও অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের দাবিতে শনিবার সকালে এলাকাবাসী একঘণ্টা সিলেট-জকিগঞ্জ সড়ক অবরোধ করে রাখলে সিলেটের পুলিশ সুপার ফরিদ উদ্দিন নিজে ছুটে যান গোলাপগঞ্জে। তিনি মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই তপন কুমারকে সাময়িক ক্লোজ ও অভিযুক্ত যুবককে গ্রেপ্তারের আশ্বাস দিলে অবরোধ তুলে নেয় এলাকাবাসী। এদিকে- এ ঘটনায় অভিযুক্ত আলাল হোসেনকে গ্রেপ্তার করতে গতকাল সোমবার ভোররাতে গোলাপগঞ্জ থানার ওসি মিজানসহ পুলিশদল জৈন্তাপুরের চিকনাগুল এলাকায় অভিযান চালায়। সেখানে আলালের খালার বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।  গোলাপগঞ্জ মডেল থানার ওসি মিজানুর রহমান আলাল হোসেনকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানিয়েছেন- প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আলাল ধর্ষণের ঘটনা স্বীকার করেছে। গতকাল বিকালে জবানবন্দি গ্রহণের জন্য আলালকে আদালতে পাঠানো হয় বলে জানান ওসি। ওদিকে- পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে আলাল জানিয়েছে- ব্র্যাককর্মী ওই তরুণীর সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। একবছর আগেই সে ওই তরুণীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে। ওই সময় ব্র্যাক থেকে টাকা ঋণ নিয়েছিল সে। এই টাকা পরিশোধের সুবাদে সে প্রায় সময়ই ব্র্যাক-এ আসতো। অফিসে আসা-যাওয়ার সুবাদে ব্র্যাককর্মী ওই তরুণীর সঙ্গে তার পরিচয় হয়। একপর্যায়ে তার সঙ্গে তরুণীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। প্রেমের কারণে প্রায় সময় তরুণীকে একান্তে কাছে পাওয়ার ইচ্ছা জাগে। এ কারণে গত বৃহস্পতিবার অফিস শেষ করার পর সে ফোনে ওই তরুণীকে ডেকে নিয়ে আসে। এরপর জোরপূর্বক তাকে সিএনজি অটোরিকশাতে তুলে নিয়ে যায় কোনারচর এলাকায়। সেখানে একটি পরিত্যক্ত ভবনের রুমের সাটার খুলে সে সন্ধ্যার পর তরুণীকে নিয়ে ঢোকে। রাতে সে ওই তরুণীকে বেশ কয়েকবার ধর্ষণ করে। পরের দিন শুক্রবারও দিনভর ওই ঘরে আটকে রেখে সে তরুণীকে ধর্ষণ করে। এ সময় সে তরুণীর মোবাইল ফোনও সরিয়ে ফেলে। সন্ধ্যার পর তাকে একটি সিএনজি অটোরিকশায় তুলে দিয়ে চলে যায়। এ ঘটনার পর মামলা হলে সে চিকনাগুলে তার খালার বাড়ি চলে যায় বলে পুলিশকে জানায়। আর ওখান থেকে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। এদিকে- জবানবন্দি গ্রহণের পর ধর্ষক আলালকে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে বলে জানায় পুুলিশ।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও বড় জয় কিশোরদের

রাখাইনে নির্যাতন অব্যাহত, কফি আনান কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের আহ্বান

এ কেমন শত্রুতা!

মওদুদের রিভিউ খারিজ, মামলা চলবে

ঢাকায় কিশোর গ্যাংয়ের ১৭ সদস্যের কারাদণ্ড

মাদারীপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২

‘মিয়ানমারের অভিযোগ হাস্যকর’

রিয়ালের ড্রয়ে হতাশ জিদান

মির্জাপুরে গুলি করে ২৬ লাখ টাকা ছিনতাই

কিশোরগঞ্জে ডেঙ্গুতে শিশুর মৃত্যু

সাবেক আইজি প্রিজনস সৈয়দ ইফতেখারকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ

মোদির সামনে কাশ্মীর ইস্যু উত্থাপন করবেন গুতেরাঁ

ওএসডি হলেন জামালপুরের সেই ডিসি

জেলখানায় সবজি চাষ করেন সেই ধর্মগুরু

ঢামেকে আরও এক ডেঙ্গু রোগীর মৃত্যু

চুল কাটায় নজরদারি