দুই ব্যর্থতা স্বীকার করলেন বিদায়ী ডিএমপি কমিশনার

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ৮ আগস্ট ২০১৯, বৃহস্পতিবার, ৩:৫৪
নিজের কর্মজীবনের শেষ কার্য দিবসে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া। ৪ বছর ৭ মাস দায়িত্ব পালনের পর দুই ব্যর্থতা অকপটে স্বীকার করলেন। তিনি বলেছেন, ১,৬৮০ দিনের কমিশনার থাকাকালীন দুই জায়গায় ব্যর্থতার আক্ষেপ রয়েছে। একটি হলো- জনগণ থানায় যে সেবা প্রত্যাশা করে, তা পূরণে আমরা অনেকাংশে ব্যর্থ হয়েছি। আরেকটি হলো- যানজট। ঢাকায় সিগন্যাল ব্যবস্থা একটি সংস্থা দেখভাল করে, পানি জমলে আরেকজনের সাহায্য নিতে হয়। এসবের কারণে যানজট নিরসন পুরোপুরি সম্ভব হয়নি। আজ সকালে রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে এক সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এসব কথা বলেন।


ডিএমপি কমিশনার বলেন, গত চার বছর সাত মাসের বেশি সময় আমি টিম ডিএমপির ৩৪ হাজার সদস্যকে এক ছাতার নিচে রেখে আইন-শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে কাজ করেছি। সফলতা ব্যর্থতা মিলেই ছিল আমার কর্মজীবন। কমিশনার হিসেবে আমি শতভাগ সফল হয়েছি, তা বলব না। তবে অনেক পরিবর্তন এনেছি। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি দাবি করেন, ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কখনও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে কোনো কাজ করেনি। যারা এই দাবি করে তারা মিথ্যা ব্লেম দেয়।

সংবাদ সম্মেলনে এসময় অন্যানের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার ও কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম বিভাগের প্রধান মো. মনিরুল ইসলাম, ডিএমপি কমিশনার (অ্যাডমিন) মীর রেজাউল করীম, অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি) আব্দুল বাতেন, ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার (ডিবি) মো. মাহাবুবে আলম ও ডিএমপির ডিসি (মিডিয়া অ্যান্ড পাবলিক রিলেশন্স) মো. মাসুদুরর রহমান প্রমুখ।



এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

স্টোকসের অবিশ্বাস্য ইনিংসে ইংল্যান্ডের ইতিহাস গড়া জয়

শুল্কমুক্ত গাড়ি সুবিধা মুহিতের সুনামের সঙ্গে মানানসই হবে না: টিআইবি

রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংককে আর কোনো অর্থ দেয়া হবে না

বিদেশগামীদের সঙ্গে প্রতারণা ঠেকাতে নজরদারি জোরদারের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

নিকাহনামা থেকে কুমারি শব্দ বাদ দেয়ার নির্দেশ

মাহীকে দুদকের জিজ্ঞাসাবাদ, যাননি স্ত্রী

ডেঙ্গুতে মৃত্যু থামছে না

স্কুল থেকে মেয়েকে নিয়ে ফেরা হলো না আফছারের

৬ মাসে খেলাপি ঋণ বেড়েছে ১৮ হাজার কোটি টাকা

কোনো ষড়যন্ত্রই উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না-সালমান এফ রহমান

দেড় মাসেও খোঁজ মেলেনি সিলেটের নাসিমার

নাগরিকত্ব দিলে একসঙ্গে ফেরার ঘোষণা

দায়বদ্ধতা ও প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নে মনোনিবেশ করুন

এডিসের বিরুদ্ধে বাড়ি বাড়ি অভিযান

প্রথম দিনেই উত্তাপ ছড়াচ্ছে জি-৭ সম্মেলন

রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় সহিংসতায় নাগরিকদের ‘সতর্ক’ করলো বৃটেন