জাকির নায়েকের আবাসিক মর্যাদার বিষয়ে আজ মালয়েশিয়ার মন্ত্রীপরিষদে বৈঠক

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক | ১৪ আগস্ট ২০১৯, বুধবার
বিতর্কিত ধর্মীয়নেতা ড. জাকির নায়েকের স্থায়ী আবাসিক মর্যাদার বিষয়ে আজ বুধবার বৈঠকে বসছে মালয়েশিয়ার মন্ত্রীপরিষদ। একজন মন্ত্রী বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে এ কথা জানিয়েছেন। তিনি মনে করেন, ড. জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানো উচিত। সেখানে তার বিরুদ্ধে অর্থ পাচার ও ঘৃণাপ্রসূত বক্তব্যের বিষয়ে যে অভিযোগ আছে তার মোকাবিলা করা উচিত।
প্রায় তিন বছর ধরে মালয়েশিয়ায় বসবাস করছেন ড. জাকির নায়েক। কিন্তু সম্প্রতি তিনি কিছু মন্তব্য করে উত্তেজনা সৃষ্টি করেছেন। জাকির নায়েক বলেছেন, ভারতে মুসলিম সংখ্যালঘুদের চেয়ে শত গুনেরও বেশি হিন্দুদের অধিকার আছে দক্ষিণপূর্ব এশিয়ার এই দেশটিতে। ওইসব হিন্দু তাই মালয়েশিয়ার সরকারের চেয়ে অনেক ক্ষেত্রে ভারত সরকারকে বিশ্বাস করে।  
মালয়েশিয়ায় বর্ণবৈষম্য ও ধর্ম স্পর্শকাতর ইস্যু। ওই দেশটির ৩ কোটি ২০ লাখ মানুষের মধ্যে শতকরা ৬০ ভাগই মুসলিম। বাকিরা জাতিগত চীনা ও ভারতীয়। ভারতীয়দের মধ্যে আবার হিন্দুর সংখ্যা বেশি। মালয়েশিয়ার মানবসম্পদ বিষয়ক মন্ত্রী এম. কুলাসেগারান বলেছেন, মালয়েশিয়া বহু বর্ণের জাতির দেশ। জাকির নায়েক তাদের মধ্যে ফাটল ধরানোর উদ্দেশে ওইসব মন্তব্য করে থাকতে পারেন, যাতে তিনি মুসলিমদের কাছে প্রিয় হয়ে ওঠেন। তিনি আরো বলেন, স্থায়ী আবাসিক মর্যাদা জাকির নায়েক আর দাবি করতে পারেন না। তাই বিষয়টি নিয়ে মন্ত্রীপরিষদে আলোচনা হবে।
ভারত সরকার জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ উত্থাপন করেছে তা তিনি বার বার প্রত্যাখ্যান করেছেন। একইভাবে মালয়েশিয়ার মন্ত্রী কুলাসেগারান ও অন্যদের অভিযোগও তিনি প্রত্যাখ্যান করেছেন। তিনি সাংবাদিকদের কাছে বুধবার একটি বিবৃতি দিয়েছেন। তাতে তিনি বলেছেন, মালয়েশিয়ার সরকারের ইসলামপন্থি এবং সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতি ন্যায্য আচরণের যে প্রশংসা আমি করেছি তা বিকৃত করা হয়েছে। আমাকে ভুলভাবে উদ্ধৃত করা হয়েছে রাজনৈতিক অর্জনের জন্য ও সাম্প্রদায়িক ফাটল সৃষ্টির জন্য।
তবে রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা বারনামা প্রধানমন্ত্রী ড. মাহাথির মোহাম্মদকে উদ্ধৃত করে বলেছে, মঙ্গলবার দিনের শেষের দিকে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ভারতে মেরে ফেলার হুমকি থাকায় জাকির নায়েককে ভারতে ফেরত পাঠানো যাবে না। যদি অন্য কোনো দেশ তাকে নিতে চায় তাহলে তাদেরকে স্বাগতম জানাবো আমরা।
ওদিকে মালয়েশিয়ার সেনাবাহিনী ও পুলিশের বর্ষীয়ানদের গ্রুপ ন্যাশনাল প্যাট্রিয়টস এসোসিয়েশন ড. জাকির নায়েকের মন্তব্যের নিন্দা জানিয়েছে। তারা বলেছে, মালয়েশিয়ায় অনেক জাতিগত ভারতীয় নিরাপত্তা রক্ষাকারী বাহিনীতে সেবা দিয়েছেন। উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের শেষের দিকে ড. জাকির নায়েকের ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশন নিষিদ্ধ করে ভারত। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধর্মীয় গোষ্ঠী ও গ্রুপের মধ্যে শত্রুতা, ঘৃণা ও অশুভ ইচ্ছার অনুভূতি ছড়িয়ে দিতে অনুমোদন বা প্রচেষ্টায় উৎসাহিত করা অথবা সহযোগিতা করার অভিযোগ আনা হয়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

ANWAR

২০১৯-০৮-১৪ ২০:০৬:৩৩

উনি ধর্মীয় নেতা কোথায় পেলেন? উনি একজন সাধারন দায়ী... তাবলীগই জামাতের মতো, শুধু উনার ধরনটা ভিন্ন। আর উনার ভিতর বিতর্কিত কি দেখলেন? মনে হচ্ছে আপনারাও হলুদ পত্রিকা......।

আপনার মতামত দিন

‘সৌদি আরবে হামলায় সন্দেহাতীতভাবে ইরানের মদত রয়েছে’

বিএনপি নেতা দুদুর বাড়িতে ছাত্রলীগের হামলা

রাতভর ক্যাসিনোতে অভিযান, গ্রেপ্তার আতঙ্কে সম্রাটও

শাহজালালে বিমানের জরুরি অবতরণ

‘সৌদি শ্রম বাজার টিকিয়ে রাখতে এখনই উদ্যোগ প্রয়োজন’

রাবিতে মাদক সেবনরত অবস্থায় ছাত্রীসহ আটক ৩

কাশ্মীর নিয়ে মন্তব্য করে সমালোচিত মালালা

আমি চাইলেই পদত্যাগ করতে পারি না: জাবি ভিসি

পাকিস্তানের আকাশসীমা ব্যবহারে ভারতের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান

যৌন হয়রানির শিকার সানাই

বঙ্গবন্ধুর খুনি নূর চৌধুরীকে নিয়ে আইনি লড়াইয়ের এক ধাপে জিতেছে বাংলাদেশ

আটকের পর ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিন রোহিঙ্গা যুবক নিহত

দেশব্যাপী ধর্মঘট ডেকেছেন শ্রীলঙ্কার চিকিৎসকরা

হামলায় ইরানের সম্পৃক্ততার প্রমাণ দেবে সৌদি আরব

‘এখন বিহারে শুটিং করছি’

ডি মারিয়ার জোড়া গোলে রিয়ালকে উড়িয়ে দিলো পিএসজি