স্টেগানে রক্ষা বার্সেলোনার

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক | ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বৃহস্পতিবার
চ্যাম্পিয়ন্স লীগে জার্মান ক্লাবগুলোর বিপক্ষে বার্সেলোনার রেকর্ড এমনিতেই ভালো নয়। মঙ্গলবার তো বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে হারতেই বসেছিল কাতালান জায়ান্টরা। ভাগ্যিস মার্ক-আন্দ্রে টার স্টেগানের মতো একজন ছিল বার্সেলোনার। একটি পেনাল্টিসহ টার স্টেগান ঠেকিয়েছেন দুটি নিশ্চিত গোল। তাতে ‘এফ’ গ্রুপের প্রথম ম্যাচে গোলশূন্য ড্র করে মাঠ ছাড়ে বার্সা। ৯ বছর পর চ্যাম্পিয়ন্স লীগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে কোনো গোল পেলো না তারা। এই ম্যাচ দিয়ে বার্সেলোনার জার্সিতে চলতি মৌসুমে প্রথমবার মাঠে নামেন লিওলেন মেসি। আনসু ফাতির বদলি হিসেবে নেমে ৩০ মিনিট খেলেন তিনি।
যদিও উল্লেখযোগ্য কিছু করতে পারেননি। ম্যাচে ডর্টমুন্ডের গোলমুখে বার্সা শটই নিয়েছে মাত্র একবার!
সিগনাল ইদুনা পার্কে প্রথমার্ধেই এগিয়ে যাওয়ার সুযোগ পায় বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের। ২৫তম মিনিটে থোরগান হ্যাজার্ডের দেয়া পাস ডি-বক্সের ভেতর পেয়েছিলেন মার্কো রয়েস। তার সামনে ছিলেন কেবল টার স্টেগান। কিন্তু জাতীয় দলের সতীর্থ রয়েসের নেয়া মাটি কামড়ানো শট দারুণ দক্ষতায় ঠেকিয়ে দেন স্টেগান। ৫৫তম মিনিটে জাদন সানচোকে ফাউল করে ডর্টমুন্ডকে পেনাল্টি উপহার দিয়েছিলেন নেলসন সেমেদো। স্পট কিক নিতে আসেন রয়েস। আর তার শট ঠেকিয়ে আরো একবার বার্সেলোনাকে বাঁচান টার স্টেগান। চ্যাম্পিয়ন্স লীগে এ নিয়ে ছয় পেনাল্টির মুখোমুখি হয়ে পাঁচটিই ঠেকালেন তিনি। ৭৭তম মিনিটে জুলিয়ান ব্রান্ট স্টেগানকে পরাভূত করতে সক্ষম হলেও বাধা হয়ে দাঁড়ায় গোলপোস্ট। তবে ড্র করলেও ডর্টমুন্ড কোচ লুসিয়েন ফাভরে সন্তুষ্ট। তিনি বলেন, ‘০-০ তে শেষ হলেও ফলাফল ইতিবাচক। কারণ এটি কঠিন গ্রুপ।’
এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লীগে ‘এফ’ গ্রুপকে বলা হচ্ছে মরণফাঁদ। বার্সেলোনার ও বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের সঙ্গে এখানে রয়েছে ইতালিয়ান জায়ান্ট ইন্টার মিলান। মঙ্গলবার অপর ম্যাচে জয় দেখেনি কোচ আন্তেনিও কন্তের ইন্টারও। ঘরের মাঠে স্লাভিয়া প্রাগের সঙ্গে কোনোমতে ১-১ গোলে ড্র করে তারা। ৬৩তম মিনিটে পিছিয়ে পড়ার পর যোগ করা সময়ে (৯০+২) ইন্টারের হয়ে সমতাসূচক গোলটি করেন ইতালিয়ান মিডফিল্ডার নিকোলো বারেল্লা।
ফাতি মাঠে নামলেই রেকর্ড
আনসু ফাতি মাঠে নামলেই যেন রেকর্ড হয়। এখন পর্যন্ত সব প্রতিযোগিতায় বার্সেলোনার হয়ে ৪ ম্যাচ খেলেছেন। প্রতি ম্যাচেই কোনো না কোনো রেকর্ড ভেঙেছেন গিনি বিসাউয়ের ১৬ বছর বয়সী এই ফেরোয়ার্ড। মঙ্গলবার বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে নেমে চ্যাম্পিয়ন্স লীগে বার্সার সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হন তিনি। ১৬ বছর ৩২১ দিন বয়সী ফাতি পেছনে ফেলেন বোইয়ান কিরকিচকে। ২০০৭-০৮ সালে ১৭ বছর ২২ দিন বয়সে চ্যাম্পিয়ন্স লীগ খেলতে নেমেছিলেন স্প্যানিয়ার্ড ফরোয়ার্ড কিরকিচ। ফাতি এর আগে লা লিগায় বার্সার হয়ে সবচেয়ে কম বয়সে অভিষেক, সবচেয়ে কম বয়সে গোল ও লা লিগায় সর্বকনিষ্ঠ খেলোয়াড় হিসেবে এক ম্যাচে গোল ও অ্যাসিস্টের রেকর্ড গড়েন।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

পদ হারালেন ওমর ফারুক

১০ বছর আমার চেহারা ভালো ছিলো এখন খারাপ হয়েছে: ওমর ফারুক চৌধুরী

যুবলীগের প্রস্তুতি কমিটি গঠন

সিঙ্গাপুরে রাজার হালে ক্যাসিনো ডন সাঈদ

মোহাম্মদপুরের সুলতানের পতন

ঢাবি অ্যালামনাই এসোসিয়েশনে কেন যেতেন জি কে শামীম

সম্রাটের অস্ত্র ভাণ্ডারের খোঁজ মিলেছে

পাক-ভারত সীমান্তে গুলির লড়াই

মেননের বক্তব্যে তোলপাড়

ঢাবিতে ফের ছাত্রদলের ওপর হামলা

খালেদা জিয়াকে দেখতে যাবেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা

মন্ত্রী হলে কি এ কথা বলতেন?

অবৈধ উপায়ে নির্বাচনে জয়ীদের কোনো বৈধতা থাকে না

সাগর-রুনি হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে তলব

ওয়াসার পানি সরাসরি পানের নিশ্চয়তা দিতে হবে

বাংলাদেশে এখন বিশ্বের আধুনিক আইটি সিস্টেম রয়েছে: জয়