প্রিয় শিক্ষক: রুহুল আমিন

পাল্টে যায় বিদ্যালয়ের চিত্র

ষোলো আনা

সাওরাত হোসেন সোহেল | ৫ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:১২
কুড়িগ্রাম জেলার ভাঙনকবলিত উপজেলা চিলমারীর সন্তান মো. রুহুল আমিন। ছোট থেকেই ইচ্ছা ছিল শিক্ষক হওয়ার। গরিব মেধাবীদের পাশে দাঁড়ানোর সঙ্গে মানুষের সেবা করার। ইচ্ছা থেকেই আসা শিক্ষকতায়। শিক্ষকতায় যোগদানের আগে থেকেই গরিব শিক্ষার্থীদের বিনা পয়সায় পড়াতেন।

২০০১ সালে উপজেলার ফকিরেরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। এরপরেই পাল্টে যায় বিদ্যালয়ের চিত্র। উন্নত হয় শিক্ষার মান। রুহুল আমিন নিজেও সময় মতো আসেন স্কুলে।
সব সময় খোঁজ নেন অনুপস্থিত শিক্ষার্থীদের বিষয়ে। শুধু তাই নয় গরিব মেধাবী শিক্ষার্থীদের বিনা পয়সায় পড়ান এখনো। এ ছাড়া বিদ্যালয় ছুটির পরও ১০ম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়ে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা ও পরামর্শ দিয়ে থাকেন। তিনি দুইবার শ্রেষ্ঠ প্রধান শিক্ষক হিসেবে পুরস্কৃত হন। প্রধান শিক্ষক মো. রুহুল আমিন বলেন, আমি একজন শিক্ষক আমার নৈতিক দায়িত্ব ছেলে-মেয়েদের সুশিক্ষায় শিক্ষিত করে তোলা। যেন সঠিক জ্ঞান অর্জন করতে পারে সেদিকে নজর রাখা।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

তাজুল ইসলাম

২০১৯-১০-০৪ ২০:০৫:৩৯

খুব ভাল।

Kazi

২০১৯-১০-০৪ ১৮:২৭:০২

এ রকম আদর্শের বড় অভাব এখন দেশে। আদর্শ চরিত্রবান্ ছাত্র তৈরি হয় আদর্শবান শিক্ষকের পরশে। আজকাল ছাত্ররা আপন সহপাঠীকে খুন করে। বড়ই দুঃখ হয়।

আপনার মতামত দিন

১০ দিনের রিমান্ডে ক্যাসিনো সম্রাট

ঢাকা কলেজ ছাড়লেন আবরারের ভাই

আবরার হত্যাকাণ্ড নিয়ে কূটনীতিকদের মন্তব্য ‘অহেতুক’

চার্জশিটভুক্তরা স্থায়ী বহিষ্কার না হওয়া পর্যন্ত ক্লাস-পরীক্ষা বর্জন

নবম ওয়েজ বোর্ডের গেজেট কেন অবৈধ নয়

আরেক আসামি গ্রেপ্তার

পিয়াজের ফের সেঞ্চুরি

তাদের ছাতা খোঁজা হচ্ছে

যেন একেকটি টর্চার সেল

লাখ কোটি টাকায় আরো দুই মেট্রোরেল প্রকল্প অনুমোদন

কীন ব্রিজ নিয়ে নাটকীয়তা

মেয়াদ শেষেও আলোর মুখ দেখেনি যুবদলের পূর্ণাঙ্গ কমিটি

বাবার কোলেই ঘুমন্ত তুহিনকে জবাই করে চাচা

বড়পুকুরিয়া খনির সাবেক ৭ এমডিসহ ২৩ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে পরোয়ানা

এমপিও নীতিমালা সংশোধনের দাবিতে শিক্ষকদের গণঅবস্থান

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ