এমপিও নীতিমালা সংশোধনের দাবিতে শিক্ষকদের গণঅবস্থান

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৩৫
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাক্ষাৎ চেয়েছেন নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা। দেশের বিভিন্ন জেলা উপজেলা থেকে আগত প্রায় ৫ শতাধিক শিক্ষক নন-এমপিও সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তির দাবি জানান। গতকাল থেকে রাজধানীর জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ‘নন-এমপিও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষক-কর্মচারী ফেডারেশনের ব্যানারে  এই গণঅবস্থান অনুষ্ঠিত হয়।

এমপিও ভুক্তি আন্দোলন আগে থেকেই করে আসছিলেন শিক্ষকরা। তবে এবারের আন্দোলন এমপিও ভুক্তির পাশাপাশি সংশোধনেরও। আন্দোলনকারীরা বলছেন, এমপিও নীতিমালা-২০১৮ পরিশিষ্ট ‘খ’ এ নিম্ন-মাধ্যমিক (৬ষ্ঠ-৮ম) শ্রেণি পর্যন্ত ১৫০ জন শিক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে। কিন্তু ‘খ’ তে নিম্ন-মাধ্যমিকে পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ও ফলাফল চাওয়া হয়নি। পরিশিষ্ট ‘ক’ তে মাধ্যমিক পর্যায়সহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ৩শ’ এবং মফস্বলে ২শ’ জন আবার বালিকা বিদ্যালয়ের ক্ষেত্রে শহরে ২শ’ জন আর মফস্বলে ১শ’ জন চাওয়া হয়েছে।
আর উভয় প্রতিষ্ঠানের জন্য পরীক্ষার্থী চাওয়া হয়েছে ৪০ জন, ২শ’ জনে ৪০ জন পরীক্ষার্থী হলে ১৫০ জনে ২৬ জন হওয়ার কথা থাকলেও উভয়ক্ষেত্রে ৪০ জন চাওয়া হয়েছে। নারী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রে ১২০ জনের মধ্যে চাওয়া হয়েছে ৪০ জন, আবার ১৫০ জনের মধ্যেও ৪০ জন চাওয়া হয়েছে। স্নাতক পর্যায়েও এমন জটিলতা তৈরি করা হয়েছে।

তাদের দাবি এমন ভুলে ভরা ও অসংগতিপূর্ণ নীতিমালা শিক্ষাব্যবস্থা ধ্বংসের মুখে পতিত হবে। বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারীরা দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর প্রকাশিত এমপিওভুক্তি থেকে বাদ পড়ার আশঙ্কা করছেন। ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মাহমুদুন্নবী ডলার বলেন, আমরা শুরু থেকেই দাবি তুলে আসছি স্বীকৃতিপ্রাপ্ত সব প্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার জন্য। বিভিন্ন সময়ে সরকার যখন প্রতিষ্ঠানগুলোকে স্বীকৃতি দেয় তখন তারা বলেছে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী কম। আপনারা এসে দেখে যান আমাদের ছাত্র-ছাত্রী কম কিনা।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

চট্টগ্রাম-৮ উপ নির্বাচনে মনোনয়ন কিনলেন বিএনপির দুই নেতা

আমরা ন্যায়বিচার চাই: খন্দকার মাহবুব হোসেন

পুরুষ ক্রিকেটের জয়ে ঢাকাকে ছাড়িয়ে গেল কাঠমান্ডু

দেশীয় সংস্কৃতি কম থাকার জন্য সময়স্বল্পতাকে দুষলেন পাপন

৩৪ বছর বয়সে প্রধানমন্ত্রী হচ্ছেন সারা মারিন

লাভা উদগীরণে নিউজিল্যান্ডে নিহত ৫, নিখোঁজ অনেক

মামলাটি দ্রুত এগুচ্ছে এটিই ইতিবাচক দিক

পরিবেশ ছাড়পত্রহীন স্থাপনা অপসারণে হাইকোর্টের রুল

আজ মুখোমুখি বসছেন পুতিন-জেলেনস্কি

“শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ে আসে জ্ঞানার্জনের জন্য, লাশ হতে নয়”

সিরাজগঞ্জে সংঘর্ষের ঘটনায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা, গ্রেপ্তার ৬

হারিরিই হতে পারেন লেবাননের প্রধানমন্ত্রী

উইন্ডিজদের বিরুদ্ধে হারের কারণ জানালেন কোহলি

অধ্যাপক অজয় রায় আর নেই

চুয়াডাঙ্গায় জামায়াতের ৪ সদস্য আটক

বৃহস্পতিবার বৃটিশ পার্লামেন্টের নির্বাচন