তাদের ছাতা খোঁজা হচ্ছে

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার | ১৬ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:৫৯
ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে দুর্নীতিবাজ ওয়ার্ড কাউন্সিলররা আর দলীয় মনোনয়ন পাবেন না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। এসব কাউন্সিলরকে যারা আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছেন, তাদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হবে কিনা জানতে চাইলে সাংবাদিকদের ওবায়দুল কাদের বলেন, আপনারা তো ছাতার কথা  বলছেন, ছাতা খোঁজা হচ্ছে। এ ব্যাপারে দুদককে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। গতকাল সচিবালয়ের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় তিনি এসব কথা বলেন। নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে বিতর্কিত ব্যক্তিরা যাতে কমিটিতে না আসতে পারে, সে ব্যাপারে। এ বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে। তিনি বলেন, যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আসবে তাদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। এমনকি আসছে নির্বাচনেও তারা দলীয় মনোনয়ন পাবেন না।
এবার উজ্জ্বল ইমেজের নেতাকর্মীদের নিয়েই নতুন কমিটি গঠন করা হবে। আর এ সিদ্ধান্ত তৃণমূল থেকে কেন্দ্রীয় কমিটি পর্যন্ত বহাল থাকবে। ওবায়দুল কাদের বলেন, মদ, জুয়া ব্যবসা ও টেন্ডারবাজি এবং দুর্নীতির বিরুদ্ধে শুদ্ধি অভিযান চলবে। সমাজ থেকে এসব অপরাধ নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত অভিযান অব্যাহত থাকবে। অপর এক প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সরকার ও দল (আওয়ামী লীগ) বিব্রত। যারা অপরাধী, তাদের সেভাবেই বিচার হবে। গুটি কয়েকের দায়ভার গোটা পার্টি নেবে না। তবে সরকার ক্ষমতায় আছে, তাই দায় নিতে হবে। এর মাধ্যমে সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে। আবরারের ঘটনায় দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে দাবি করে সেতুমন্ত্রী বলেন, আবরার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় শুধু নিন্দা নয়, তড়িৎ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আগে কখনো এতো তড়িৎ ব্যবস্থা কেউ নেয়নি। প্রধানমন্ত্রী ঘটনার পর আইজিপিকে ডেকে নিয়ে সব অপরাধীকে গ্রেপ্তার করতে বলেছেন। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। আবরারের পরিবার সোমবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেছেন। সেখানে প্রধানমন্ত্রী তাদের বলেছেন, যতদ্রুত সম্ভব অপরাধীদের বিচার হবে। আইনমন্ত্রীকেও বলেছেন যত দ্রুত সম্ভব অপরাধীদের বিচার করতে হবে। তিনি আরও বলেন, শিক্ষার্থীদের সব দাবি মেনে নেয়া হয়েছে। তাহলে এখনো আন্দোলন কেন? যেহেতু সরকার তড়িৎ ব্যবস্থা নিয়েছে,সব দাবি মেনে নেয়া হয়েছে, অহেতুক আন্দোলন না করে পড়াশোনায় মনোনিবেশ করা উচিত। ওবায়দুল কাদের বলেন, আবরারের ঘটনার সঙ্গে যারা জড়িত, আমার মতে তাদের মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত। আদালত সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন। কিন্তু সেখানে তো কয়েকজন মেধাবী ঝরে গেল। অপরাধীদের মধ্যে ভ্যান চালকের সন্তানও আছে। এটা তো দেশের জন্য ক্ষতিকর। আবরার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় বিএনপি ইস্যু বানাচ্ছে বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, আবরার হত্যাকাণ্ড নিয়ে উদ্বেগ নেই তাদের (বিএনপি)। এটাকে তারা আন্দোলনের ইস্যু বানাতে চাইছে। এটা নিয়ে তারা আন্দোলন করতে চায়। নইলে তারা এটি নিয়ে কেন উস্কানি দিচ্ছে। বিএনপি এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে দেশে সহিংসতা করলে অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা নেয়া হবে। বিএনপির উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন,তারা হার্ডলাইনে গেলে গণতন্ত্রের জন্য ভালো,হার্ডলাইনের পক্ষে আমরা। খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য নিয়ে বিএনপি যতটা না উদ্বিগ্ন,তার চেয়ে শারীরিক অবস্থা নিয়ে কোনো রাজনীতির ইস্যু পাওয়া যায় কিনা সেটি নিয়ে বেশি চেষ্টা তাদের। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করে দেয়া সমাধান নয়। তবে বুয়েটে ছাত্র রাজনীতি বন্ধ হলে সে ব্যাপারে সরকারের কোনো আপত্তি নেই। কারণ এটি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের বিষয়। অপর এক প্রশ্নের জবাবে চট্টগ্রামে মেট্রোরেল নির্মাণ করা হবে বলেও জানান সেতুমন্ত্রী।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

সমন্বয়হীনতা ও পর্যবেক্ষণের অভাবে বাজারে এমন অবস্থা

মাবিয়ার ইতিহাসের দিনে তিন স্বর্ণ বাংলাদেশের

বন্ধু সৈকত গ্রেপ্তার

তিন বিভাগের মধ্যে সমন্বয়ে গুরুত্বারোপ

ওবায়দুল কাদেরের বিকল্প কে?

দীর্ঘ হচ্ছে দুদকের অনুসন্ধান তালিকা বেশির ভাগই সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী

রাজধানীর পৃথকস্থানে দু’টি বাসে আগুন

বঙ্গবন্ধুকে ‘ডক্টর অব ল’ সম্মাননা দেবে ঢাবি

জটিলতায় আটকে আছে ২ লক্ষাধিক ড্রাইভিং লাইসেন্স

‘আওয়ামী লীগ আমার আবেগ আমার অস্তিত্ব’

সভাপতি এমএ সালাম সম্পাদক আতাউর

রোহিঙ্গাদের অধিকার বিষয়ক অফিস বন্ধের নির্দেশ বাংলাদেশের

সমাধান খুঁজছে সিলেট বিএনপি

নিহত রুম্পার গ্রামের বাড়িতে শোকের মাতম

সেনাবাহিনী প্রধান মিয়ানমার সফরে যাচ্ছেন আজ

রাখে আল্লাহ মারে কে!