জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

হল না ছাড়লে কঠোর ব্যবস্থা নেবে প্রশাসন

অনলাইন

স্টাফ রিপোর্টার | ৬ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, ৩:৫৭
অনির্দিষ্টকালের বন্ধ ঘোষণার পরও ক্যাম্পাস ছেড়ে না যাওয়ায় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। হল ছাড়ার সময়সীমা কয়েক দফা পিছিয়েও তাতে কর্ণপাত না করায় পুলিশ ডেকে হলে হলে তল্লাশি চালিয়ে শিক্ষার্থীদের বের করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। আজ বেলা ২টার দিকে হল প্রভোস্ট কমিটির বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি অধ্যাপক বশির আহমেদ এই হুঁশিয়ারি দেন।

তিনি বলেন, সিন্ডিকেট সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গতকাল বিকাল সাড়ে ৫টায় মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ  দেয়া হয়েছিল। দূর-দূরান্তের শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনা করে ওই নির্দেশনা শিথিল করা হয়। তিনি দাবি করেন, ইতিমধ্যে ছাত্রীদের হল খালি হয়ে গেছে। ছাত্র হলে অনেকেই এখনও অবস্থান করছে। তাদের  বেলা সাড়ে ৩টার মধ্যে হল ছাড়তে হবে।
তা না হলে প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়া হবে। হলসংলগ্ন খাবার  দোকানগুলো বন্ধ রাখারও নির্দেশ দেয়া হয়েছে বলে জানান ভিসিপন্থি এই শিক্ষক।

এর আগে মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটের জরুরি এক সভা শেষে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়। প্রথমে বিকাল সাড়ে ৪টার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশের কথা জানান ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন জারি করা এক বিজ্ঞপ্তিতে বিকাল সাড়ে ৫টার মধ্যে হল ছাড়ার নির্দেশ দেয়। এই নির্দেশের পর শিক্ষার্থীরা হল ছাড়তে শুরু করলেও অনেকেই  থেকে যান এবং গভীর রাত পর্যন্ত আন্দোলনে অংশ নেন। পরে বুধবার সকাল থেকে আবার আন্দোলন শুরু করেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, দুর্নীতির অভিযোগে ভিসি অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের বিরুদ্ধে প্রায় তিন মাস ধরে আন্দোলন চলছে। অক্টোবরের শেষ থেকে আন্দোলনকারীরা  প্রশাসনিক ভবন অবরোধ এবং সর্বাত্মক ধর্মঘট পালন করছিলেন। ফলে কার্যালয়ে যেতে পারছিলেন না উপাচার্য। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে আন্দোলনকারী শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা চালায় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। হামলায় শিক্ষক-সাংবাদিকসহ অন্তত ৩০ জন আহত হন। পরে এক জরুরি সিন্ডিকেট সভায় অনির্দিষ্টকালে জন্য বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধের ঘোষণা দেয়া হয়।

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

রিপন

২০১৯-১১-০৬ ১৯:৫৯:২৯

বিলম্ব কেন? নিয়ে ফেলুন জলদি। দেখি কঠোর ব্যবস্থাটির স্যাম্পল?

আপনার মতামত দিন

রাশিয়ার কাছ থেকে মিসাইল সিস্টেম কিনছে ভারত

লাইনের ক্রটির কারণেই সিরাজগঞ্জের ট্রেন দুর্ঘটনা: তদন্ত কমিটি

রাম মন্দির নির্মাণকাজে ৫১ হাজার রুপি অনুদান ঘোষণা শিয়া সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ডের

দেশে ফিরলেন সৌদিতে নির্যাতনের শিকার সেই নারী

শিশু চুরি করে হাজার টাকায় বিক্রি

ক্যালিফোর্নিয়ায় স্কুলে কিশোর বন্দুকধারীর হামলায় নিহত ২

শায়েস্তাগঞ্জে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, নারীসহ আহত ১০

‘দিন শেষে যুদ্ধটা সবার’

রেলওয়ের খালাসি ও মিস্ত্রিসহ ৩ জন আটক

মালয়েশিয়া পাচারকালে ১২২ রোহিঙ্গা উদ্ধার

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মিয়ানমারের নাগরিক নিহত, সাড়ে তিন কোটি টাকার ইয়াবা জব্দ

ছয় কিংবদন্তিকে উৎসর্গ করে ফোক ফেস্ট শুরু

বাংলাদেশ-নেপাল যোগাযোগ ও বাণিজ্য বাড়ানোর পরামর্শ প্রেসিডেন্টের

২২০ ছাড়িয়েও নটআউট পিয়াজ

পিয়াজ

ক্ষুদ্র ঋণে দারিদ্র্য লালন-পালন হয়