অভিযোগের তদন্ত করে ব্যবস্থা নিলে জাবিতে এ পরিস্থিতি নাও আসতে পারতো

অনলাইন

তামান্না মোমিন খান | ৬ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, ৪:৩৯
ঢাকা  বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ড. আ.আ.ম.স আরেফিন সিদ্দিক বলেছেন, জাহাঙ্গীর নগর  বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে যে পরিস্থিতি তা অনাকাঙ্খিত। বেশ কিছুদিন ধরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ^বিদ্যালয়ে শিক্ষার কোন সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় ছিল না। নানা ধরনের আন্দোলন চলছিল এই বিশ^বিদ্যালয়ে। বর্তমান পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য যেটা প্রয়োজন ছিল তা হলো সুষ্ঠু তদন্ত কমিটি গঠন করা। যে অভিযোগগুলো ছিল সেগুলোর সুষ্ঠু তদন্ত করে যদি ব্যবস্থা নেয়া যেত তাহলে হয়তো এই অবস্থা নাও আসতে পারতো। সেটা হয়নি। গত মঙ্গলবার যে পরিস্থিতি ছিল উপার্চাযের পক্ষে এবং বিপক্ষে দু দলের মধ্যে সরাসরি হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছিল। এরপরে বিশ^বিদ্যালয় কতৃপক্ষের বন্ধ ঘোষণা করা ছাড়া আর উপায় ছিল না।
বিশ্ববিদ্যালয় যদি বন্ধ ঘোষণা করা না হতো তাহলে হয়তো পরিস্থিতি আরো খারাপ হতো। বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা সাময়িক একটা সমাধান এনে দিয়েছে পরিস্থিতিকে শান্ত করতে। কিন্তু স্থায়ী সমাধানের জন্য একটি সুষ্ঠু তদন্ত কমিটি গঠন করতে হবে।

যে অভিযোগগুলো এসেছে এগুলোর সত্যতা আছে কিনা তা যাচাই করতে হবে। সত্যতা যদি থাকে তবে সে অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নিতে হবে। আর সত্যতা যদি না থাকে তবে অসত্য অভিযোগ আনা এবং আন্দোলনে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। বিশ্ববিদ্যালয় একটি সায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান। আমরা কখনও চাইবনা এখানে বাহির থেকে কোন হস্তক্ষেপ আসুক। বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ ছাত্র, শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের এ সমস্যা সমাধানের সক্ষমতা আছে। আর কোন কারণে যদি তারা ব্যর্থ হয় তবে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন বা শিক্ষা মন্ত্রণালয় বিষয়টি দেখতে পারে। বিশ^বিদ্যালয়ের অবস্থা যে জায়গায় গেছে তা থেকে উত্তরণের জন্য আমরা বিশ্ববিদ্যালয়ের সায়ত্বশাসনের ওপরেই নির্ভর করতে চাই।


 


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

রাশিয়ার কাছ থেকে মিসাইল সিস্টেম কিনছে ভারত

লাইনের ক্রটির কারণেই সিরাজগঞ্জের ট্রেন দুর্ঘটনা: তদন্ত কমিটি

রাম মন্দির নির্মাণকাজে ৫১ হাজার রুপি অনুদান ঘোষণা শিয়া সেন্ট্রাল ওয়াকফ বোর্ডের

দেশে ফিরলেন সৌদিতে নির্যাতনের শিকার সেই নারী

শিশু চুরি করে হাজার টাকায় বিক্রি

ক্যালিফোর্নিয়ায় স্কুলে কিশোর বন্দুকধারীর হামলায় নিহত ২

শায়েস্তাগঞ্জে দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষ, নারীসহ আহত ১০

‘দিন শেষে যুদ্ধটা সবার’

রেলওয়ের খালাসি ও মিস্ত্রিসহ ৩ জন আটক

মালয়েশিয়া পাচারকালে ১২২ রোহিঙ্গা উদ্ধার

টেকনাফে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মিয়ানমারের নাগরিক নিহত, সাড়ে তিন কোটি টাকার ইয়াবা জব্দ

ছয় কিংবদন্তিকে উৎসর্গ করে ফোক ফেস্ট শুরু

বাংলাদেশ-নেপাল যোগাযোগ ও বাণিজ্য বাড়ানোর পরামর্শ প্রেসিডেন্টের

২২০ ছাড়িয়েও নটআউট পিয়াজ

পিয়াজ

ক্ষুদ্র ঋণে দারিদ্র্য লালন-পালন হয়