লঞ্চের ধাক্কায় বালুবাহী জাহাজ ডুবি, ৩ শ্রমিক নিখোঁজ

অনলাইন ডেস্ক

অনলাইন ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রোববার, ১২:৩৩

ফাইল ফটো
মুন্সীগঞ্জে মেঘনায় লঞ্চের ধাক্কায় একটি বালুবাহী বাল্কহেড ডুবে ৩ শ্রমিক নিখোঁজ হয়েছেন। আজ  রোববার ভোর সোয়া ৫টার দিকে গজারিয়া লঞ্চঘাটের কাছে মেঘনায় বরিশাল থেকে ঢাকার সদরঘাটগামী লঞ্চ এমভি কীর্তনখোলা-২ এর ধাক্কায় ঘুমন্ত চার শ্রমিকসহ জাহাজটি ডুবে যায় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

নিখোঁজদের মধ্যে রয়েছেন আসলাম (২৪) ও এমাইদুল (৩৮)। এছাড়া নিজাম (৪০) নামে অপর এক শ্রমিক তীরে উঠতে সমর্থ সক্ষম হয়েছেন।

এ ঘটনায় লঞ্চের চালক মো. শহিদুল ইসলাম, দুই মাস্টার জাহাঙ্গীর হোসেন ও ইউনুচ ব্যাপারীকে আটক করা হয়েছে।

গজারিয়া থানার ওসি হারুন-অর-রশীদ জানান, রাতে চলাচলের কারণে বালুভর্তি একটি জাহাজকে কোস্টগার্ড আটক করে। গজারিয়া ঘাটের কাছে নোঙর করে রাখা জাহাজটিকে একটি লঞ্চ ধাক্কা দিলে এ ঘটনা ঘটে।

কোস্টগার্ডের স্টেশন অফিসার এমএম আসিফ জানান, রোববার সকালে ঢাকার সদরঘাট থেকে লঞ্চটির চালক মো. শহিদুল ইসলাম এবং দুই মাস্টার জাহাঙ্গীর হোসেন ও ইউনুচ ব্যাপারীকে আটক করা হয়েছে।

চালক মো. শহিদুল ইসলামের দাবি- কুয়াশা থাকায় খুব কাছে আসার পর জাহাজটি দেখা যায়। দ্রুত বেগার দেয়ার আগেই বালুর জাহাজটি ডুবে যায়।

বালুর জাহাজটির মালিক রুহুল আমিন বলেন, চাঁদপুর থেকে বালুভর্তি করে কিন্তু সেখানে জাহাজ রাখার জায়গা না থাকায় বাড়ির কাছে চরহোগলার কাছে  মেঘনায় নিয়ে আসা হচ্ছিলো। তিনি আরও বলেন, রাতে চলাচলের কারণে কোস্টগার্ড এটি আটক করে নিয়ে যায়।

মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার বলেন, ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিস এবং ডুবুরি দল তলব করা হয়েছে।।

অনলাইন অন্যান্য খবর

রোহিঙ্গা কিশোরীর আত্মহত্যা

১৫ ডিসেম্বর ২০১৯

কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলায় ক্যাম্পে মায়ের সঙ্গে অভিমান করে গলায় ফাঁস দিয়ে এক রোহিঙ্গা কিশোরী আত্মহত্যা ...





আপনার মতামত দিন

অনলাইন সর্বাধিক পঠিত