পেকুয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ডাকাত সরদার নিহত

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি

অনলাইন ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, ১২:৩৭ | সর্বশেষ আপডেট: ৯:০৭

কক্সবাজারের পেকুয়ায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তালিকাভুক্ত ডাকাত সরদার মোহাম্মদ আলম (২৮) নিহত হয়েছেন। আজ ভোর সাড়ে ৫টার দিকে টইটং ইউনিয়নের গুদিকাটা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ১২টি দেশীয় তৈরি বন্দুক ও ২৩ রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করে।

নিহত মোহাম্মদ আলম রাজাখালী ইউনিয়নের বদিউদ্দিন পাড়া এলাকার আবুল হোসেনের ছেলে। তার বিরুদ্ধে পেকুয়াসহ আশপাশের বিভিন্ন থানায় ডাকাতি, চাঁদাবাজি, হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের ওপর নির্যাতনসহ বিভিন্ন আইনে ৭টি মামলা রয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশ।

পুলিশের দাবি, অভিযানে সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) কাজী মতিউর ইসলাম, পেকুয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান, এএসআই মেজবাহ উদ্দিনসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল আজম। তিনি বলেন, আজ ভোরে টইটং ইউনিয়নের গুদিকাটা এলাকায় দুই ডাকাত দলের মধ্যে গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ডাকাতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালায়।
এ সময় ডাকাতদলের সদস্যরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তে ছুঁড়তে গহীন অরণ্যে পালিয়ে যায়। পুলিশও আত্মরক্ষার্থে বেশ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি বর্ষণ করে।

ওসি আরও বলেন, পরে ঘটনাস্থল থেকে তালিকাভুক্ত ডাকাত সরদার আলমের লাশ ও অস্ত্র-গুলি উদ্ধার করা হয়। লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

সুজনের তথ্য বিশ্লেষণ

অধিকাংশ কাউন্সিলর প্রার্থীই স্বল্প শিক্ষিত

২৫ জানুয়ারি ২০২০





অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



আইনজীবী ইন্দিরার সমালোচনায় কঙ্গনা

ওই মহিলাকে চার দিন ধর্ষকদের সঙ্গে জেলে রাখা উচিত