ঢাবি ভিসি’র কাছে দোয়া চাইলেন ইশরাক

স্টাফ রিপোর্টার

শেষের পাতা ২৪ জানুয়ারি ২০২০, শুক্রবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৮

আসন্ন ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে যদি ভোট কারচুপি হয় তাহলে জনগণ এর জবাব দেবে বলে মন্তব্য করেছেন দক্ষিণের বিএনপি’র মনোনীত মেয়রপ্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন। গতকাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় চৌদ্দতম দিনের প্রচারণাকালে একথা বলেন তিনি।

সকাল সাড়ে নয়টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. আখতারুজ্জামানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ইশরাক। এ সময় আসন্ন নির্বাচনে তিনি ভিসির কাছে দোয়া ও সহযোগিতা চান। তিনি নিজের একটি পোস্টার ভিসির হাতে তুলে দেন। এ সময় ইশরাক বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে আমার আত্মার সম্পর্ক। আমার বাবা, আমার মা, আমার বোন এখান থেকে পড়াশোনা করেছেন। স্যার আমি এখানে এসেছি আপনার কাছে দোয়া চাইতে। আমার ছোটবেলা থেকেই ইচ্ছা ছিলো রাজনীতি করার।
এরজন্য নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছি। আমি যদি মেয়র নির্বাচিত হই, তাহলে সিটি করপোরেশনের সব সমস্যা নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করবো। এছাড়া মানুষের সব ধরনের অধিকার নিয়ে আমি কাজ করতে চাই। আমি জনসেবায় নিজেকে নিয়োজিত করতে চাই।

তার কথা শুনে অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন, আশা করছি সামনের নির্বাচনে একটি সুষ্ঠু এবং সাবলীল পরিবেশ থাকবে। এখানে আসার জন্য আমি আপনাদেরকে স্বাগত জানাচ্ছি।

এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রো-ভিসি আ ব ম ইউসুফ হায়দারসহ বিএনপিপন্থি শিক্ষকরা উপস্থিত  ছিলেন। দুপুর বারোটা পর্যন্ত ঢাবি এলাকায় প্রচারণা চালান ইশরাক। সেখান থেকে দুপুরে হাইকোর্ট মাজার গেটে গেলে সেখানে প্রচারণায় যোগ দেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। দুপুরের বিরতি শেষে বেলা দেড়টা থেকে শ্যামপুর থানার ৫৪ নং ওয়ার্ডের জুরাইন মাজারের ব্যাংক এশিয়ার সামনে থেকে গণসংযোগ শুরু করে পোস্তগোলা, জুরাইন কবরস্থান, আরসিন গেট, টিএন্ডটি ও বাংলাদেশ ব্যাংক কলোনী, গেন্ডারিয়া ডিআইটি প্লট, পাইপ রাস্তা, শীট মার্কেট, আবু হাজী প্রাইমারী স্কুল হয়ে ৫১নং ওয়ার্ডের দয়াগঞ্জ মোড়ে এসে গণসংযোগ ও প্রচারণা শেষ করেন বিএনপির এই প্রার্থী।

প্রচারণায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, বিএনপি নেতা কামরুজ্জামান রতন, ক্রীড়া সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, নির্বাহী সদস্য নিপুন রায়, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার, ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি রাজীব আহসান, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন, সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন শ্যামল, সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবন, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুর রহমান আমিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মতামত দিন



শেষের পাতা অন্যান্য খবর

নাঈমে শেষ বিকালে স্বস্তি

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

কলকাতার ডায়েরি

কলকাতায় চলবে লন্ডনের মতো ছাদ খোলা দোতলা বাস

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০



শেষের পাতা সর্বাধিক পঠিত