ঢাকা দক্ষিণ-৫৭ নম্বর ওয়ার্ড

সমস্যা অনেক প্রতিশ্রুতিরও কমতি নেই

জয়নুল হক

এক্সক্লুসিভ ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রোববার | সর্বশেষ আপডেট: ৯:০৬

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের কামরাঙ্গীরচর থানাধীন ৫৭ নম্বর ওয়ার্ড। ঘনবসতিপূর্ণ ও সরু অলিগলিতে ঠাসা। বুড়িগঙ্গার পাড়ে অবস্থিত এ এলাকার অপরিকল্পিত ও অপ্রশস্ত রাস্তাঘাটে নানা সমস্যা। রাস্তার পাশে খোলা জায়গায় ময়লার স্তূপ। ব্যাটারিচালিত অবৈধ তিন চাকার যানবাহন চলাচল বেশি থাকায় সড়কে অনিয়ম-অব্যবস্থাপনা লেগেই থাকে। কামরাঙ্গীরচর থেকে ৩ কিলোমিটার দূরত্বের নগর ভবন আসতেই লেগে যায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা। এই ওয়ার্ডে ডিএসসিসির কোনো কমিউনিটি সেন্টার, মাতৃসদন, ব্যায়ামাগার, খেলার মাঠ ও শিশুপার্ক না থাকায় সমস্যায় রয়েছে বাসিন্দারা। কমিউনিটি সেন্টার না থাকায় নিম্নবিত্ত ও মধ্যবিত্তদের বিয়েসহ সামাজিক অনুষ্ঠান পালন করতে অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করতে হচ্ছে।
ওয়ার্ডটিতে মাদকের বেচা-কেনা প্রকাশ্যেই চলে। এতসব সমস্যা সমাধানে নানা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন প্রার্থীরা। এ ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগ থেকে প্রার্থী হয়েছেন- বর্তমান কাউন্সিলর মো. সাইদুল ইসলাম মাদবর এবং বিএনপি থেকে প্রার্থী হয়েছেন ওয়ার্ড বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. পারভেজ মিয়া।

সাইদুল মাদবর বলেন, আমি গতবার কাউন্সিলর নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই এলাকার উন্নয়নের জন্য কাজ করার সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছি। নগর ভবন থেকে যা প্রাপ্য আশা করেছিলাম সেটা দিয়ে কিছুই করতে পারিনি। শুধুমাত্র রাস্তাঘাটগুলো করতে পেরেছি। রাস্তা সংস্কার কাজ, স্যুয়ারেজ ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার আধুনিকায়ন, সড়কবাতি স্থাপনের কাজ শতভাগ সম্পন্ন হয়েছে। এ ছাড়া মাদক নির্মূলে কাজ করেছি। আমার এলাকার মানুষ এখন ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় ঘুরতে যায়, অথচ আমার এলাকা বুড়িগঙ্গার পাড়ে অবস্থিত। এবার নির্বচিত হলে আমি এ এলাকাকে পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে তুলব। যেন অন্য এলাকা থেকে এখানে মানুষ ঘুরতে আসে। কমিউনিটি সেন্টার ও খেলার মাঠ নির্মাণের জন্য বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে একটি প্রকল্প অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। এলাকার যানজট নিরসনে ছাতামসজিদ ও মুসলিমবাগের শেষ মাথায় একটি ব্রিজ নির্মাণের চেষ্টা করব। এছাড়াও গতবার আমি কামরাঙ্গীরচর থেকে নগরভবন পর্যন্ত রাস্তা প্রশস্ত করার জন্য অপ্রাণ চেষ্টা করেছিলাম। এবার সেই কাজটা শেষ করতে চাই। বিএনপি থেকে মনোনয়ন পাওয়া মো. পারভেজ মিয়া বলেন, আমাদের সবচেয়ে বড় সমস্যা হলো- বুড়িগঙ্গার বর্জ্যপদার্থ, মাদক ও যানজট। নির্বাচিত হলে মাদক নির্মূলের পাশাপাশি শিশুদের জন্য খেলার মাঠ, এলাকাবাসীর সামাজিক প্রোগ্রামের জন্য কমিউনিটি সেন্টার নির্মাণ, যানজট নিরসন, গ্যাসের সমস্যা সমাধান করে কামরাঙ্গীরচরকে আধুনিকায়ন করব। কামরাঙ্গীরচর বুড়িগঙ্গার পাড়ের ময়লা-আবর্জনার স্তুপ পরিষ্কার করে গাছ লাগিয়ে এর অবকাঠামোগত উন্নয়নের ব্যবস্থা করব এবং এ এলাকা পর্যটন খাত হিসেবে গড়ে তোলব। এছাড়াও নির্বাচিত হলে এলাকাবাসীর সমস্যা সমাধানে আমি আন্তরিকভাবে কাজ করব।

কামরাঙ্গীরচর থানার আশ্রাফাবাদ, মাদরাসাপাড়া, মমিনবাগ, আহসানবাগ, পাকাপুল, ইসলামনগর, দুখুরিয়া, মাদবরবাজার, নুরবাগ, কুমিল্লাপাড়া, রহমতবাগ, নিজামবাগ, বাগচান খাঁ পশ্চিমাংশ, বাগচান খাঁ পূর্বাংশ, ইব্রাহীমনগর, বালুরমাঠ, করিমাবাদ, হাসলাই, মুসলিমবাগ এলাকা নিয়ে এ ওয়ার্ড গঠিত। প্রায় চার লাখ মানুষের এ ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ৫৫ হাজার। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ২৮ হাজার ৩৯১ জন ও নারী ২৬ হাজার ৫৬৯ জন।

আপনার মতামত দিন



এক্সক্লুসিভ অন্যান্য খবর

আইসিস বধূ শামীমা এখন যেমন

১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

১৫ রঙের ফুল এখন গাজীপুরের গবেষণা মাঠে

লিলিয়াম চাষে নতুন সম্ভাবনা

১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আরো কিছু কথা

১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০



এক্সক্লুসিভ সর্বাধিক পঠিত