সংসদে প্রধানমন্ত্রী

চীনে সৃষ্ট সমস্যার কারণে বিকল্প পথ খুঁজছি

সংসদ রিপোর্টার

অনলাইন ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, ৯:৩২ | সর্বশেষ আপডেট: ৯:৩৭

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, চীনে করোনা ভাইরাসের কারণে যে সমস্যা হচ্ছে তা সমাধানে বিকল্প পথ খোঁজা হচ্ছে। এ নিয়ে আতঙ্কের কিছু নেই। মঙ্গলবার সংসদে অধিবেশনের সমাপনি বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় প্রধানমন্ত্রী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী মুজিব বর্ষকে সামনে রেখে দেশের চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে দেশবাসীর সহযোগিতা কামনা করে বলেন, কারোর প্রতি বিদ্বেষ নিয়ে চলি না বা প্রতিশোধ নিতেও যাইনি। যেখানে অন্যায় হয়েছে, সেখানে ন্যায় করার চেষ্টা করেছি। প্রধানমন্ত্রী জঙ্গী-সন্ত্রাস ও ধর্ষণকারীদের বিরুদ্ধে তাঁর সরকারের জিরো টলারেন্স নীতির কথা তুলে ধরে দেশবাসীকে এদের আইন-শৃঙ্খলাবাহিনীর হাতে ধরিয়ে দেয়ার আহ্বান জানান। তিনি বলেন, সন্ত্রাস-জঙ্গীবাদী-মাদক ও ধর্ষণকারীদের বিরুদ্ধে আমরা কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছি, কাউকে ছাড় দিচ্ছি না। অগ্নিসন্ত্রাস, নাশকতা, নানা ষড়যন্ত্রসহ বৈরী অবস্থা মোকাবেলা করেই আমরা দেশকে সবদিক থেকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি।
দেশের এই অগ্রযাত্রার ধারা অব্যাহত রাখতে তিনি দেশবাসীর সর্বাত্মক সহযোগিতাও কামনা করেন। প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে শেষে প্রেসিডেন্টকে ধন্যবাদ জানিয়ে আনীত প্রস্তাবটি সর্বসম্মতিক্রমে গৃহীত হয়। আলোচনার শেষ দিনে আরও বক্তব্য রাখেন বিরোধী দলের নেতা বেগম রওশন এরশাদ, আওয়ামী লীগের প্রবীণ নেতা আমির হোসেন আমু ও চিফ হুইপ নূর-ই-আলম চৌধুরী লিটন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, রাষ্ট্রপতি তার ভাষণের মধ্যে দিয়ে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেছেন। উন্নয়নের বিস্তারিত তথ্য তুলে ধরেছেন। প্রত্যেক এমপিরা এই ভাষণ ভালভাবে পড়লে দেশের জন্য আমরা যে উন্নয়ন করেছি তা জানতে পারবেন। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এটা সর্বজন স্বীকৃত। আগে মানুষের জীবনে কোন নিরাপদ ছিল না, সন্ত্রাস-জঙ্গীবাদ-শিক্ষাঙ্গণে অস্ত্রের ঝনঝনানি ছিল। আগে বাংলাদেশকে অনেকে করুণার চোখে দেখতো, কিন্তু এক দশকে বাংলাদেশের সেই অবস্থান পরিবর্তন করতে পেরেছি। কারণ আমরা বঙ্গবন্ধুর পথ ধরে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। এতো উন্নয়ন যদি কেউ না দেখে, সেটা তাদের দেখার ভুল। আমরা তৃণমুল পর্যায় পর্যন্ত উন্নয়ন করেছি, যার সুফল দেশের মানুষ পাচ্ছে।

বিরোধী দল উপস্থিত থেকে সংসদকে প্রাণবন্ত করে রাখায় ধন্যবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মাঝে মাঝে মধ্যে কিছু সমস্যা দেখা যায়, আমরা দ্রুত সমাধান করছি। করোনা ভাইরাস মোকাবিলায় আমরা যথাযথ পদক্ষেপ নিয়েছি। এয়ারপোর্টসহ সব জায়গায় বিদেশ থেকে আগতদের পরীক্ষা করা হচ্ছে, যেন কেউ করোনা ভাইরাস নিয়ে দেশে আসতে না পারে। ডেঙ্গু সমস্যা সমাধানে দেশবাসীকে নিজেদের বাড়ি-ঘর পরিস্কার করার অনুরোধ করবো। নিজেরা ঘর-বাড়ি পরিস্কার করতে পারলে মশা উৎপাদন হবে না।

ধর্ষকরা পশুরও অধম উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা শিশু-কিশোরীদের ধর্ষণ করে তারা মানুষ নামে পশু, এরা পশুরও অধম। তাদেরও তো মা-বোন-মেয়ে আছে। এমন জঘন্য চরিত্রের মানুষ কীভাবে হতে পারে? জঙ্গীবাদ-মাদক-ধর্ষণকারীদের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছি। দেশবাসীও যেন এদের ধরিয়ে দিতে সহযোগিতা করেন। রমজান আসলেই অনেকে অনেক খেলার চেষ্টা করে। কেউ যেন গুজবে আতঙ্কে না পড়েন। আমরা এ ব্যাপারে যথাযথ পদক্ষেপ নিচ্ছি। চীনে সৃষ্ট সমস্যার কারণে বিকল্প পথ খুঁজছি, তাই আতঙ্কের কিছু নেই।

আপনার মতামত দিন



অনলাইন অন্যান্য খবর

তিতাস নদী থেকে মাঝির লাশ উদ্ধার

৭ এপ্রিল ২০২০

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে নৌকা থেকে পড়ে গিয়ে নিখোঁজের দুইদিন পর আব্দুল হামিদ (২৫) নামের এক নৌকার ...

স্বাস্থ্যখাতে বরাদ্দ বাড়ানোর সুপারিশ সানেমের

৭ এপ্রিল ২০২০

করোনা ভাইরাসের প্রভাবে সৃষ্ট সংকট মোাবিলায় দুবছর মেয়াদী বিশেষ পরিকল্পনা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছে দক্ষিণ এশিয়ার ...

রামগতিতে একজনের মৃত্যু, ১৬ পরিবার লকডাউন

৭ এপ্রিল ২০২০

লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলায় এক ব্যক্তির (৫৫) মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় মৃত ব্যক্তির বাড়িসহ তিন বাড়ির ...

কোটচাঁদপুরে মৃত পুলিশ সদস্য করোনা আক্রান্ত নয়

৭ এপ্রিল ২০২০

কোটচাঁদপুরে শনিবার সর্দি কাশি ও জ্বরে আক্রান্ত হয়ে নিহত অবসরপুলিশ ...

বাকেরগঞ্জে করোনা সন্দেহে একজনকে শেবাচিমে প্রেরণ, ৪ বাড়ি লকডাউন

৭ এপ্রিল ২০২০

বরিশালের বাকেরগঞ্জে একজন রোগী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে সন্দেহে নমুনা সংগ্রহ ...

ভারতে আটকে পড়া চার বাংলাদেশি বাংলাবান্ধা দিয়ে ফিরল

৭ এপ্রিল ২০২০

করোনার কারণে ভারতে লকডাউনে আটক পড়া বাংলাদেশি নাগরিকদের পঞ্চগড়ের বাংলাবান্ধা স্থলবন্দর দিয়ে দেশে ফিরিয়ে আনার ...

গাজীপুর সিটির ৫৭ ওয়ার্ড লকডাউন, দুই মহাসড়কে ১০ চেকপোস্ট

৭ এপ্রিল ২০২০

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৫৭ টি ওয়ার্ড লকডাউনের নির্দেশ দিয়েছেন সিটি মেয়র। এছাড়া নগরের দুটি মহাসড়কে ...



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত