পটুয়াখালীতে আশ্রয় কেন্দ্রে প্রায় চার লক্ষ মানুষ

পটুয়াখালী প্রতিনিধি

অনলাইন ২০ মে ২০২০, বুধবার, ৪:১৯ | সর্বশেষ আপডেট: ১১:৩৪

ঘূর্ণিঝড় আম্ফান যতো এগিয়ে আসছে, সাগর নদ-নদী ততোই উত্তাল হচ্ছে। মাঝে মাঝে দমকা হাওয়া এবং হালকা থেকে মাঝারি ধরনের  বৃষ্টিপাত অব্যাহত  রয়েছে। আম্ফানের পাশাপাশি অমাবস্যার প্রভাবে সাগর যেমন উত্তাল রয়েছে, নদ-নদীর পানিও স্বাভাবিকের চেয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। অরক্ষিত বেড়িবাধ দিয়ে জোয়ারের পানি প্রবেশ করায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রাঙ্গাবালী উপজেলার মাঝের চর, চর আন্ডা, চরমোন্তাজ, চালিতাবুনিয়াসহ পাঁচটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে । এসকল চর এলাকার পানিবন্ধি মানুষদের নিকটবর্তি সাইক্লোন শেল্টারে নেয়ার ব্যবস্থা করছেন রাঙ্গাবালী উপজেলা নির্বাহি অফিসার মাশফাকুর রহমান। তিনি জানান, চরমোন্তাজ ও চরআন্ডার পানিবন্ধিদের ট্রলার যোগে অন্যত্র সরিয়ে নেয়া হচ্ছে। এদিকে নৌকা ডুবে কলাপাড়ার ধানখালী ৬ নং ইউনিটের সিপিপি টিম লিডার শাহ-আলম নিখোঁজ রয়েছেন। তাকে উদ্ধারের জন্য কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস।
বিভিন্ন স্থানে ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলা ও ঘূনিঝড় পরবর্তী প্রস্তুত এবং করনীয় বিষয় সচেতনতা মুলক প্রচার মাইকিং অব্যাহত রয়েছে। এ পর্যন্ত জেলার ৮ টি উপজেলার নয় শতাধিক সাইক্লোন শ্লেটারে প্রায় ৩ লক্ষ ৮২ হাজার  মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে আশ্রয় নিয়েছে বলে জেলা ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা মো. মাহবুবুল আলম নিশ্চিত করেছেন।
ঘূর্নিঝড় আম্ফান পরিস্থিতিতে সরকার জেলায় ২০০ মে.টন চাল, নগদ ৩ লক্ষ টাকা, শিশু খাদ্য খাতে ২ লক্ষ টাকা ও পশূ খাদ্যের জন্য ২ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দিয়েছে বলে ঘূর্ণিঝড় নিয়ন্ত্রণ কক্ষ সূত্রে জানাগেছে। এ ছাড়া জেলায় ৩২৫ টি মেডিকেল টিম প্রস্তুত রাখা হয়েছে বলেও সূত্র জানায়।

আপনার মতামত দিন

অনলাইন অন্যান্য খবর

খোলা থাকবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অফিস

১ জুন ২০২০

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধের এবং পরিস্থিতি উন্নয়নের লক্ষ্যে দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। ...



অনলাইন সর্বাধিক পঠিত



৩১শে মে থেকে খুলছে অফিস, ঘুরবে চাকাও

১৫ দফা নির্দেশনায় যা বলা হয়েছে