করোনায় বেকার নারীর আত্মহনন

বড়াইগ্রাম (নাটোর) প্রতিনিধি

বাংলারজমিন ১২ জুলাই ২০২০, রোববার

নাটোরের বড়াইগ্রামের বনপাড়া বাহিমালী গ্রামের জেনি বেবী কস্তা (৩৮) নামে একজন খৃস্টান নারী ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। রোববার সকালে ওই নারীর মৃতদেহ ময়না তদন্ত করা হয়েছে। এর আগে শনিবার  বিকেলে নিজ বাড়ির শোবার ঘরের দরজা ভেঙ্গে পুলিশ ওই নারীর ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। সে ওই গ্রামে মৃত আব্রাহাম কস্তার মেয়ে। ওই নারীর নিকটাত্মীয়রা জানান, গত ১৬ বছর আগে স্বামীর সাথে ছাড়াছাড়ি হয়ে গেলে জেনি বেবী কস্তা আর বিয়ে করেনি। সে ঢাকায় একটি বিদেশী হাউজে ’হাউজ কেয়ার গিভার’ পদে চাকরি করতো। করোনা পরিস্থিতির কারণে গত মার্চ মাসে ওই হাউজের সকল সদস্য নিজ দেশ আমেরিকায় চলে গেলে সে কর্মহীন হয়ে পড়ে। এরপর পিতৃ-মাতৃহীন জেনি বেবী কস্তা গ্রামের বাড়িতে এসে ছোট ভাই বিলাস কস্তার কাছে আশ্রয় নেয়।
দীর্ঘদিন বাড়িতে অবস্থান করায় ভাই, দাদা, বৌদি ও ভাতিজারা তার সাথে খারাপ আচরণ করতো। গত মাসে পারিবারিক কলহের জের ধরে দাদা রঞ্জন কস্তার ছেলে তরুণ কস্তা জেনি বেবীকে মারধর করে রক্তাক্ত আহত করে। চাকরি হারিয়ে দীর্ঘদিন বেকার থাকা ও ভাই-দাদা ও বৌদির কাছ থেকে অবহেলিত হওয়ায় সে মানসিক কষ্টে ভুগছিলো। প্রায় ১ মাস যাবত আত্মহত্যা করবেÑ এমন ইঙ্গিত দিয়ে সে ফেসবুকে নানাবিধ পোস্ট দিয়ে আসছিলো। সর্বশেষ শুক্রবার রাতে ফেসবুকে ২৬টি নিজের ছবি পোস্ট দিয়ে স্ট্যাটাস দেয় ‘আমি মরে গেলে তোরা এগুলো দেখিস’। বনপাড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ তৌহিদুল ইসলাম জানান, ওড়না দিয়ে ঘরের ডাবের সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে সে আত্মহত্যা করে। দীর্ঘবছর একাকিত্ব জীবন-যাপন ও দীর্ঘদিন বাড়িতে বেকার অবস্থান করায় তিনি হতাশায় ভুগছিলেন। তার মৃত্যুর ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা দায়ের করা হয়েছে।
অপর একটি ঘটনায় উপজেলার জোয়াড়ি ইউনিয়নের কায়েমকোলা গ্রামে পারিবারিক কলহের জের ধরে হায়াত আলী (৬০) নামে এক বৃদ্ধ আত্মহত্যা করেছে। সে ওই গ্রামের সকির প্রামাণিকের ছেলে। বড়াইগ্রাম থানার ইন্সপেক্টর সুমন আলী জানান, শনিবার সকালে সে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

MURSHED ALOM

২০২০-০৭-১২ ২৩:৩৩:৩১

Although an individual can make a choice of ending his or her life by committing a suicide but it is so vastly sad that those who are on the verge of choosing to end their lives most likely never realize that how importantly the philosophy of life and existence embraces the living of a human life because if there is a life there is always hope..........!!!!!!

আবুল কাসেম

২০২০-০৭-১২ ১০:৩০:৩০

Life is not a bed of roses. প্রকৃতপক্ষে ঝঞ্ঝাবিক্ষুব্ধ ও সংগ্রাম মুখর দুনিয়ায় জীবন যুদ্ধে টিকে থাকা এক কঠিন পরীক্ষা এবং তা অন্তহীন ধৈর্যের সম্মুখীন। করোনা কালীন চাকরি হারানোর বেদনায় অনেকেরই জীবন নীল হয়ে পড়েছে। স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, সমাজের বিত্তবান ব্যক্তি ও প্রশাসনের এদিকে নজর দেয়া ও খোঁজখবর নেয়া জরুরি। নাহলে কর্মহীনতার যন্ত্রণা সইতে না পেরে আরো কারো কারো আত্মহননের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়া যায়না। যদিও মহান সৃষ্টিকর্তা আত্মহনন নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছেন এবং আত্মহত্যাকারীর জন্য জান্নাত হারাম করেছেন। তবে সবাইকে বলবো, সুখে দুঃখে সর্বাবস্থায় এবং বিপদ-আপদ ও কষ্ট-মুসিবত যতো বড়োই হোকনা কেনো সবসময়ই সর্বশক্তিমান অসীম দয়ালু দাতা মহান আল্লাহ তায়ালার উপর তাওয়াককুল করতে হবে এবং প্রয়োজনে চরম ধৈর্যের পরাকাষ্ঠা প্রদর্শন করতে হবে। চাওয়ার মতো চাইতে পারলে মহান আল্লাহ কাউকে নিরাশ করেননা। আল্লাহর দয়া, ক্ষমা ও অনুগ্রহ থেকে নিরাশ হতে তিনি নিষেধ করেছেন। পবিত্র কুরআনে বলা হয়েছে, "লা তাক্কনাতু মির্রহমাতিল্লহ।" অর্থাৎ আল্লহর দয়া-অনুগ্রহ থেকে নিরাশ হয়োনা। মহানবী মুহাম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, "তোমরা যদি আল্লাহর উপর সত্যিকার ভাবে তাওয়াককুল ও ভরসা করতে পারো, তাহলে তোমাদেরকে এমন জায়গা থেকে রিজিক দেয়া হবে যা তোমাদের ধারণা-কল্পনার বাইরে। তোমরা দেখোনা, পাখিরা সকালে খালি পেটে বাসা থেকে বের হয়ে যায় আর সন্ধ্যা বেলায় ভরা পেটে বাসায় ফিরে আসে।" দেশ ও সমাজের মধ্যে করোনার উছিলায় কর্ম হারাদের প্রতি মানবিক হওয়া আমাদের কর্তব্য। ভাই, বোন ও নিকট আত্মীয় হলেতো কথাই নেই। মানুষ কখনো সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে একা বাস করতে পারেনা। তাই পরিবার ও সমাজে সংঘবদ্ধভাবে আমাদের বসবাস করতে হয়। সেজন্যই আমাদের একজনের প্রতি অন্যজনের দায়বোধ থাকতে হবে। রাসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, "সে মুমিন নয়, যে পেট ভরে আহার করে কিন্তু তার প্রতিবেশী অভুক্ত থাকে, সে তার খোঁজখবর রাখেনা।" যাদের অমানবিক আচরণ ও নিষ্ঠুরতার শিকার হয়ে করোনা সংকটকালে চাকরি হারা নাটোরের ভদ্রমহিলা বেবি কস্তা আত্মহননের পথ বেছে নিতে বাধ্য হয়েছেন, তাদেরকে দৃষ্টান্ত মূলক ও কঠোর শাস্তির মুখোমুখি দাঁড় করানো হোক।

মেহেদী হাসান

২০২০-০৭-১২ ০৭:৪৭:০২

আর একটু সময় নিয়ে চিন্তা করতে পারতেন । ধর্ম ও সমাজ জীবনে জন্য হয়তবা অনেকেই না বলেছিলেন হয়তবা। কিছু এই মানুষগুলোর জন্য চলে গেলেন । আর কোনো প্রান , চলে যাওয়া মানা যায়না ।

আপনার মতামত দিন

বাংলারজমিন অন্যান্য খবর

ফুফুর বাড়িতে মাংস দিতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলো হাফেজ ফাহিম

১ আগস্ট ২০২০

ফুফুর বাড়িতে মাংস দিতে গিয়ে দুই ভাইয়ের একজন লাশ হয়ে বাড়িতে ফিরেছে । আরেক ভাইয়ের ...

নবীগঞ্জে পানিতে ডুবে দুই কিশোরীর মৃত্যু

১ আগস্ট ২০২০

নবীগঞ্জে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে গিয়ে হাওরের পানিতে ডুবে দুই কিশোরীর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। উপজেলার ...

বাসাইলে বিদ্যুতস্পৃষ্টে নৌকাডুবি, পাঁচজনের মৃত্যু

৩১ জুলাই ২০২০

টাঙ্গাইলের বাসাইলে বিদ্যুতস্পৃষ্টে নৌকা ডুবে মা-ছেলে সহ পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে।  শুক্রবার (৩১জুলাই) বিকেল সাড়ে চারটায় ...

সাটুরিয়ায় ৫ কোটি টাকার মাছ বন্যার পানিতে ভেসে গেছে

৩১ জুলাই ২০২০

সাটুরিয়া উপজেলার বালিয়াটি জমিদার বাড়ির চারপাশের শতাধিক পুকুরের মাছ ভেসে গেছে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত অর্ধশতাধিক মৎস্যচাষি ...

ঘুমধুমে বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা মাদক ব্যবসায়ী নিহত

৩১ জুলাই ২০২০

বান্দরবান পার্বত্য জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার দুর্গম ঘুমধুম সীমান্তে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে রোহিঙ্গা শাহ আলম (৪০) ...

ফুলবাড়ীতে মানবপাচার প্রতিরোধে মানববন্ধন

৩১ জুলাই ২০২০

‘প্র্রতিশ্রুতিবদ্ধ হয়ে ফ্রন্টলাইনে কাজ করি-মানবপাচার নির্মূল করি’- এই স্ল্লোগানকে ধারণ করে কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে উপজেলা প্রশাসনের ...



বাংলারজমিন সর্বাধিক পঠিত