৫৭ ধারা একটি কালো আইন

ফেসবুক ডায়েরি

অমিতাভ রেজা চৌধুরী | ১৫ জুলাই ২০১৭, শনিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১০:৫৭
চলচ্চিত্র গবেষক ও লেখক অধ্যাপক ফাহমিদুল হকের বিরুদ্ধে ৫৭ ধারায় যে হয়রানিমূলক মামলা করা হয়েছে তা প্রত্যাহার করা হোক।
৫৭ ধারা একটি কালো আইন। এই আইন মানুষের কণ্ঠরোধ করার জন্য, মানুষকে দমন করার জন্য এবং মানুষের প্রতিবাদকে নস্যাৎ করতে প্রবর্তন করা হয়েছে। এই কালো আইনের সর্বশেষ শিকার অধ্যাপক ফাহমিদুল হক। আমরা সকলে অবিলম্বে এই মামলা প্রত্যাহার দাবি করছি।
আমরা আশা করি মামলাকারী শিক্ষকের শুভবোধের উদয় হবে এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এমন হয়রানি এবং হঠকারি পদক্ষেপ থেকে নিজেদের মর্যাদাকে সুরক্ষিত করবেন।
বাংলাদেশের সকল চলচ্চিত্র নির্মাতা, চলচ্চিত্র সংগঠক, চলচ্চিত্র শিক্ষক ও গবেষক, চলচ্চিত্র সাংবাদিক, চলচ্চিত্র কর্মী সকলের কাছে আহ্বান আপনারা এই কালো আইনের (৫৭ ধারা) বিরুদ্ধে সোচ্চার হোন এবং অধ্যাপক ফাহমিদুল হকের সপক্ষে অবস্থান নিন। আমরা অবশ্যই অধ্যাপক ফাহমিদুল হকের সঙ্গে আছি, পাশে আছি এবং লড়াইয়ের সম্মুখে আছি!।


এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

যশোরে বিএনপি নেতা অমিতের বক্তব্যে তোলপাড়

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু

‘বিষয়টি নিয়ে আমি বেশ উত্তেজিত’

পাঁচ দশকের দীর্ঘ লড়াই

ভিডিও দেখে অস্ত্রধারীদের খোঁজা হচ্ছে

‘অতিষ্ঠ হয়ে প্রেমিককে ছুরিকাঘাত’

ফল প্রকাশের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ, অবরোধ

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সময় লাগবে ৯ বছর!

মত প্রকাশের স্বাধীনতা সীমিত, আক্রমণের শিকার নাগরিক সমাজ

মেয়র আইভী হাসপাতালে

জিয়াউর রহমানের ৮২ তম জন্মবার্ষিকী আজ

এবার আটকে গেল দক্ষিণের ১৮ ওয়ার্ডের নির্বাচনও

হাথুরুকে দেখিয়ে দেয়ার লড়াই

‘আপনার এত তাড়াহুড়া কিসের?’

সংবাদটি আমাকেও শোকে মুহ্যমান করে ফেলে

‘নেতৃত্ব তৈরির প্রক্রিয়া বাধাগ্রস্ত করতেই ছাত্র সংসদ নির্বাচন বন্ধ রাখা হয়েছিল’