ঢাবিতে ‘স্মরণে শপথে ১৫ আগস্ট’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

শিক্ষাঙ্গন

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার | ২১ আগস্ট ২০১৭, সোমবার
জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের আয়োজনে ‘স্মরণে শপথে ১৫ আগস্ট’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনস্থ অ্যালামনাই ফ্লোরে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ কে আজাদ। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর অর্থনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা ড. মসিউর রহমান। বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক এবং প্রো-ভিসি (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মো: আখতারুজ্জামান। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক রঞ্জন কর্মকার। এতে আলোচক হিসেবে অংশ নেন বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন, অধ্যাপক ড. সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম, অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সিনিয়র সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট মোল্লা মো. আবু কাওসার প্রমুখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. মসিউর রহমান বলেন, গণতন্ত্র ও মানুষের প্রতি ভালোবাসা ছিল বঙ্গবন্ধুর দর্শন। প্রগাঢ় রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক বিবেচনাবোধ থাকায় তিনি উপলব্ধি করতে পেরেছিলেন, পাকিস্তান নামের অস্বাভাবিক রাষ্ট্রটি বেশিদিন টিকবে না। সেই উপলব্ধি থেকেই তিনি ছয় দফার ডাক দেন এবং তার সফল নেতৃত্বের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ রাষ্ট্রের জন্ম হয়। ভিসি অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বলেন, বঙ্গবন্ধু উদার মনের মানুষ ছিলেন। ষড়যন্ত্রের বিষয়ে বিদেশি গোয়েন্দা সংস্থা তাকে অবহিত করলেও তিনি তা আমলে নেননি। কারণ বাঙালির ওপর তার বিশ্বাস ছিল। সেই বিশ্বাস নিয়েই সপরিবারে তিনি জীবন দিলেন, আর আমরা বাঙালিরা অবিশ্বাসী রয়ে গেলাম। তিনি আরও বলেন, যে ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে হত্যা করা হয়েছে, তা এখনও চলছে। সবাইকে চক্রান্তের বিষয়ে সজাগ থাকতে হবে।  

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

আটকে গেল ঢাকার নির্বাচন

ধরা পড়েনি সেই অস্ত্রধারী

স্থগিতে সরকারের ভূমিকা নেই

হার জেনে সুযোগ নিয়েছে সরকার

ভোট নিয়ে হাসিনা-প্রণব আলোচনা

ছয় মাসের মধ্যে ডাকসু নির্বাচনের ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন চুক্তি বিশ্বব্যাপী প্রতিক্রিয়া

ওআইসি’র নির্বাচনে ঢাকার প্রার্থীতার ক্যাম্পইন শুরু

নির্বাচন এলেই একটি শ্রেণি মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে

ট্রাম্প টাওয়ারে যেন উদ্ভট রিহার্সেল

চট্টগ্রামে ‘স্কুল ছাত্রলীগের’ প্রথম বলি আদনান!

ইয়ে থি আজীব বাত...

মুলতবির আবেদন খারিজ আজও আদালতে যাবেন খালেদা জিয়া

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর নগ্ন ছবি ছড়ানোর অভিযোগে দুজন আটক

জুড়িতে দুই পক্ষের সংঘর্ষে মুক্তিযোদ্ধা নিহত

গৌরনদীতে ছাত্রলীগ ও যুবলীগের সংঘর্ষ, আহত ৬