মিরপুরে বাসচাপায় স্কুলছাত্রী নিহত, বিক্ষোভ ভাঙচুর

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার | ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, বুধবার
তাসনিম আলম তিশা (১২)। বাবা ও মায়ের একমাত্র মেয়ে। মিরপুর গার্লস আইডিয়াল ল্যাবরেটরি ইনস্টিটিউটের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী। বাবা তাকে স্কুলে রেখে আসেন। আবার স্কুল শেষে মা নিয়ে আসেন। প্রায় প্রতিদিনই এভাবেই সে স্কুলে যাতায়াত করে থাকে।
গতকাল দুপুরে স্কুল ছুটির পর তৃষার মা রিমা আক্তার তাকে নিয়ে একটি রিকশাযোগে বাসায় ফিরছিলেন। এসময় রিকশায় ছিল তৃষার ভাই তাহমিদ আলম। রিকশাটি কাফরুল থানাধীন শেওড়াপাড়ার রোকেয়া সরণির লাইফ এইড স্পেশালাইড হাসপাতালের সামনে থামে। তখন রিমা আক্তার তৃষা এবং তাহমিদ আলম হাত ধরে রাস্তা পার হচ্ছিলেন। রিমা ছেলে ও মেয়ের দুজনেরই হাত ধরেছিলেন। রিমা তার ছেলেকে নিয়ে সড়কের বিভাজকে উঠে যান। কিন্তু, তৃষা উঠতে পারেনি। দ্রুতগতির একটি বাস তৃষার বুকের ওপর দিয়ে চলে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তার। চোখের সামনে একমাত্র মেয়ের মৃত্যু কোনোভাবেই মেনে নিতে পারছিলেন না রিমা আক্তার। কাফরুল থানার সামনে তৃষার মা আহাজারি করছিলেন আর বলছিলেন, ‘আমার তৃষার হাত আমি কেন আরো শক্ত করে ধরলাম না। আমি এ কষ্ট কিভাবে সইবো।
দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কাফরুল থানাধীন শেওড়াপাড়ার লাইফ এইড স্পেশালাইড হাসপাতালের সামনের তেতুলিয়া পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো-ব-১১-৭৩৭০) নম্বরের একটি বাস তৃষাকে চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যায় তৃষা। তখন বিক্ষুব্ধ জনতা বাসটিতে ভাঙচুর চালিয়ে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। এতে ওই এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। ট্রাফিক পুলিশ যানবাহনগুলোকে উল্টো দিকে ঘুরিয়ে  দেয়। তাৎক্ষণিক সড়কে সাময়িকভাবে যানচলাচল বন্ধ হয়ে যায়। এতে মিরপুরগামী যানবাহনগুলো আটকা পড়ে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে পুলিশ বাসটি থানায় নিয়ে যায়। এ ঘটনায় বাসটির  হেলপার আব্দুর রহিমকে স্থানীয় জনতা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। তবে বাসটির চালক জানালা দিয়ে পালিয়ে যায়। ছাত্রী নিহতের ঘটনায় মিরপুরের স্থানীয় কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। পরে পুলিশ বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের ঘটনার জন্য দায়ী চালককে শাস্তি দেয়া হবে- এমর্মে আশ্বাস দিলে তারা সড়ক অবরোধ তুলে নিলে যান চলাচলের জন্য আবারো সড়ক উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সোহান ফার্নিচারের কর্মচারী রবিউল ইসলাম জানান, একজন গৃহবধূ তার দুজন শিশুকে নিয়ে রাস্তা পার হচ্ছিলেন। ওই গৃহবধূ এক শিশুকে নিয়ে সড়ক বিভাজকে উঠতে পারলেও আরেকজনকে নিয়ে উঠতে পারেননি। এসময় তেতুলিয়া পরিবহনের একটি বাস তাকে চাপা দেয়। পরে স্থানীয়রা ধাওয়া দিয়ে বাসটিকে আটক করে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। স্থানীয় চা দোকানি সুমন জানান, এ সড়কে একটি ফুটওভার ব্রিজ থাকলেও সেটি দূরে রয়েছে। এতে অনেকেই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে বাধ্য হয়ে রাস্তা পার হন। ফুটওভার ব্রিজ হলে এই সড়কে দুর্ঘটনা কমে যাবে বলে তিনি জানান। গতকাল দুপুরে কাফরুল থানায় গিয়ে দেখা যায়, থানার মূল গেটের সামনে একটি অ্যাম্বুলেন্সে তৃষার লাশ রাখা আছে। অ্যাম্বুলেন্সের দরজা ধরে আহাজারি করছেন তৃষার মা রিমা আক্তার। এসময় সেখানকার পরিবেশ ভারি হয়ে উঠে। অ্যাম্বুলেন্সের পাশে ফ্যাল ফ্যাল করে বোনের দিকে তাকিয়ে আছে তৃষার ছোট ভাই তাহমিদ আলম।
তৃষার দূর সম্পর্কের আত্মীয় শহিদুল ইসলাম জানান, প্রতিদিন রুটিন অনুযায়ী তৃষাকে তার বাবা স্কুলে রেখে আসতো। আর মা নিয়ে আসতো। হঠাৎ দুর্ঘটনায় পরিবারের সবাই মুষড়ে গেছেন। তৃষার বাবার নাম খোরশেদ আলম। তিনি মিরপুরের একটি বেসরকারি কোম্পানিতে চাকরি করেন। পূর্ব কাজীপাড়ার একটি বাসায় পরিবারের সঙ্গে থাকতো তৃষা।
কাফরুল থানার এসআই মোজাম্মেল  হোসেন মানবজমিনকে জানান, স্কুলছাত্রী নিহতের ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। তেতুলিয়া পরিবহনের বাসটি মোহাম্মপুরের শিয়া মসজিদ থেকে আবদুল্লাহপুর চলাচল করে থাকে। তবে ঘটনার সময় বাসটিতে কোনো যাত্রী ছিল না। তিনি আরো জানান, বিক্ষুব্ধ লোকজন দুর্ঘটনার জন্য দায়ী বাসটিকে আটক করে আগুন দিয়েছে। বাসটির হেলপার আব্দুর রহিমকে স্থানীয়রা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। বাসের চালককে আটক করার জন্য চেষ্টা চালানো হচ্ছে। নিহত ছাত্রীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

 

এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

আপনার মতামত দিন

জঙ্গি হামলায় আরেক অর্থ সরবরাহকারী গ্রেপ্তার

কুমিল্লার টার্গেট ১২৯

সৌদি আরবে ২৪ হাজার অবৈধ অভিবাসী গ্রেপ্তার

আওয়ামী লীগের আমলেই সংখ্যালঘুরা নিরাপত্তাহীনতায় থাকে : ফখরুল

‘হাসপাতালে বিল পরিশোধে ব্যর্থ হলে মরদেহ আটকে রাখা যাবে না’

৭ই মার্চকে জাতীয় ঐতিহাসিক দিবস ঘোষণা কেন নয় : হাইকোর্ট

রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধানে চীনের তিন দফা প্রস্তাব

সিএনজি অটোরিকশার ৪৮ঘন্টার ধর্মঘট

শাহজালালে ৩ কোটি টাকা মূল্যের স্বর্ণসহ আটক ১

দীপিকার মাথা কাটলে পুরস্কার ১০ কোটি রুপি!

কেন সৌদি আরব ও ইরান পরস্পরের প্রতিপক্ষ?

বন্দুকের নলের মুখেও ক্ষমতা ছাড়তে রাজি নন মুগাবে

‘পুরুষের চেয়ে নারীরা বেশি যৌন নিপীড়ক’

মা ও ছেলেকে কুপিয়ে হত্যা করলো যুবক

কানাডার উন্নয়নমন্ত্রী আসছেন মঙ্গলবার

ব্যক্তির নামে সেনানিবাসের নামকরণ মঙ্গলজনক হবে না: মওদুদ