রাজারহাটে ১ ঘণ্টায় ৭ লাখ বৃক্ষরোপণ

বাংলারজমিন

রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি | ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার | সর্বশেষ আপডেট: ১২:০৩
সবুজ ও পরিচ্ছন্ন রাজারহাট প্রকল্প বাস্তবায়নে মাত্র ১ ঘণ্টায় ৭ লাখ বৃক্ষরোপণ সম্পন্ন করে বিশ্বের মধ্যে অনন্য রেকর্ড গড়ল রাজারহাট উপজেলা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রীরাই বৃক্ষ রোপণে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রেখেছে। এজন্য তারা দিন-রাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে আসছিল। রাজারহাট উপজেলার মতো সারা দেশে এ কার্যক্রম চললে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়ন সম্ভব। গতকাল কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলাজুড়ে একযোগে মাত্র ১ ঘণ্টায় ৭ লাখ বৃক্ষরোপণের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ এ কথা বলেন। রাজারহাট হ্যালিপ্যাড মাঠে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাজারহাট উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. রফিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে এতে আরো বক্তব্য রাখেন- কুড়িগ্রাম জেলা প্রশাসক আবু ছালেহ মোহাম্মদ ফেরদৌস খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেনহাজুল আলম, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবুল হাসেম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি চাষী আব্দুস ছালাম, সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবুনুর মো. আক্তারুজ্জামান প্রমুখ। রাজারহাট উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ এবং ৭টি ইউনিয়ন পরিষদের যৌথ উদ্যোগে ঘড়ির কাঁটায় ঠিক তখন সকাল ১০টা একযোগে গোটা উপজেলাজুড়ে ৩ হাজার টিম লিডারের বাঁশি বাজিয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির কার্যক্রম শুরু হয়ে তা চলে বেলা ১১টা পর্যন্ত। এতে অত্র উপজেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ৪০ হাজার শিক্ষার্থীসহ ১ লাখ ১৫ হাজার সাধারণ মানুষের সম্মিলিত অংশগ্রহণে উপজেলার ৫০০টি রাস্তার ৫০১ কি. মি. এলাকাজুড়ে আনন্দমুখর পরিবেশে এ কার্যক্রম সম্পন্ন হয়। এ কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন করতে ২০০টি কমিটি কাজ করে। উল্লেখ্য, ৬৩ প্রজাতির ফলদ, বনজ ও ঔষধি জাতের ৭ লাখ চারা রোপণ করা হয়।  এ ব্যাপারে রংপুর বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহমেদ জানান, বৃক্ষরোপণ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এটি বিশ্বের মধ্যে উপজেলা পর্যায়ে এই প্রথম। আশা করছি, সবুজ ও পরিচ্ছন্ন রাজারহাট হিসেবে গিনেস বুকে রেকর্ড গড়লো রাজারহাট উপজেলা। শেষে তিনি সাংবাদিকদের কাছে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির তাৎপর্য তুলে ধরে প্রেস ব্‌্িরফিং দেন।

 
এই বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

পাঠকের মতামত

**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।

Md Khalil Rahman

২০১৭-০৯-১৪ ০৬:০৭:০৯

Congratulation to Rajarhat People.

Md Imran

২০১৭-০৯-১৩ ২০:৪৭:৪৯

অভিনন্দন রাজারহাটবাসিকে

আপনার মতামত দিন